× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ৮ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

সাইকেল চালিয়ে সন্তান প্রসব করতে হাসপাতালে গেলেন নিউজিল্যান্ডের এমপি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) নভেম্বর ২৮, ২০২১, রবিবার, ৩:০৫ অপরাহ্ন

খবরটা রীতিমতো গা শিউরে উঠার মতো। নিউজিল্যান্ডের গ্রিন পার্টির এমপি জুলি অ্যান জেন্টার এমন এক খবরের শিরোনাম। তিনি সন্তান সম্ভাবা ছিলেন। প্রসব বেদনা উঠতেই তিনি নিজের সাইকেল চালিয়ে একা একা চলে গেলেন হাসপাতালে। সেখানে পৌঁছার এক ঘন্টা পরে দ্বিতীয় সন্তান প্রসব করেন। এ ঘটনা ঘটেছে শনিবার দিবাগত রাতের একেবারে শেষ প্রহরে। সন্তান প্রসবের দু’এক ঘন্টা পরে তিনি ফেসবুক পেইজে একটি পোস্ট দিয়েছেন। তাতে ইংরেজিতে লিখেছেন- বিগ নিউজ।
ভোর ৩টা ৪ মিনিটে আমাদের পরিবারের নতুন সদস্যকে স্বাগত জানালাম। প্রসব বেদনা নিয়ে আমি আসলে সাইকেল চালাতে চাইনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা-ই করতে হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন গার্ডিয়ান।

নিউজিল্যান্ডের মোট জনসংখ্যা ৫০ লাখ। অধিবাসীদের বিনয়, শৃংখলার প্রতি আনুগত্য জগতজোড়া। প্রধানমন্ত্রী থাকা অবস্থায় সন্তান জন্ম দিয়েছেন জাসিন্দা আরডেন। এ জন্য তিনি মাতৃত্বকালীন ছুটি নিয়েছিলেন। একবার তো জাতিসংঘের মিটিংয়ে তিন মাস বয়সী সন্তানকে কোলে নিয়ে হাজির হন তিনি। তখনও তিনি ওই সন্তানকে বুকের দুধ পান করাচ্ছিলেন। তার দেশের এমপি জুলি অ্যান জেন্টার। তিনি ফেসবুকে আরো লিখেছেন, আমার প্রসববেদনা অতো বেশি ছিল না। রাত দু’টার দিকে আমি হাসপাতালের উদ্দেশে ঘর থেকে বের হই। আমার বাসা থেকে ২ থেকে ৩ মিনিটের দূরত্বে হাসপাতাল। সেখানে পৌঁছার ১০ মিনিটের মধ্যে প্রসববেদনা তীব্র হতে থাকে।

এখন ভাল লাগছে যে, আমাদের একটি সুস্থ এবং আনন্দে থাকা ছোট্ট বেবি হয়েছে। তার বাবা যেমন ঘুমাচ্ছে, সেও তেমনি ঘুমাচ্ছে। জুলি অ্যান জেন্টার নিউজিল্যান্ড বংশোদ্ভূত একজন মার্কিন নাগরিক। দুই দেশেই তার নাগরিকত্ব আছে। তার জন্ম যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটায়। ২০০৬ সালে তিনি চলে গিয়েছেন নিউজিল্যান্ডে।

গ্রিন পার্টির পরিবহন বিষয়ক মুখপাত্র জুলি অ্যান জেন্টার। ফেসবুকে তিনি যে প্রোফাইল ছবি দিয়েছেন তাতে লেখা রয়েছে- আই লাভ মাই বাইসাইকেল। ২০১৮ সালে প্রথম সন্তান জন্ম দেয়ার সময়ও তিনি এই বাইসাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে উপস্থিত হন। ওই সময় তিনি ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টে লিখেছিলেন, রোববারের ভোরটা খুবই সুন্দর। হাসপাতালে যাচ্ছি। একটি নবজাতকের মুখ দেখবো বলে। এই পোস্টের সঙ্গে তিনি নিজের ৪২ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা অবস্থার কয়েকটি ছবিও পোস্ট করেন।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর