× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ১৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

বিয়ানীবাজারে ৩ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী দিয়েছে জামায়াত জাপা’র অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন

বাংলারজমিন

বিয়ানীবাজার (সিলেট) প্রতিনিধি
২৯ নভেম্বর ২০২১, সোমবার

বিয়ানীবাজারের ১০টি ইউনিয়নের ৩টিতে স্বতন্ত্রের মোড়কে প্রার্থী দিয়েছে জামায়াতে ইসলামী। এই ৩ ইউনিয়নের মধ্যে আবার দুটিতে বিএনপি দলীয় কোনো স্বতন্ত্র প্রার্থী নেই। তবে এখানকার একটিমাত্র ইউনিয়নে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে নির্বাচনের খবর পাওয়া গেছে। আর কোথাও জাতীয় পার্টির প্রার্থী নেই বলে বিভিন্ন সূত্র নিশ্চিত করেছে। জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দলের এমন ত্রাহি অবস্থায় উপজেলাজুড়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। জানা যায়, বিয়ানীবাজারের মুড়িয়া, লাউতা ও তিলপাড়া ইউনিয়নে স্বতন্ত্রভাবে প্রার্থী দিয়েছে জামায়াতে ইসলামী। তন্মধ্যে স্বতন্ত্র হিসেবেও মুড়িয়া ও লাউতায় বিএনপির কোনো প্রার্থী নেই। সূত্র জানায়, তিলপাড়ার প্রার্থীকে দলীয়ভাবে সমর্থন জানায়নি স্থানীয় জামায়াত।
উপজেলার লাউতায় মো. দেলোওয়ার হোসেন এবারো নির্বাচন করছেন। এ নিয়ে মোট ৩ বার তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মুড়িয়া ইউনিয়নে নির্বাচন করছেন জামায়াতের উপজেলা শাখার সেক্রেটারি ফরিদ আল মামুন। তিলপাড়ায় আজমল হোসেন বেলায়েত স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। যদিও এখানে বিএনপির দলীয় প্রার্থী স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচন করছেন। এ বিষয়ে উপজেলা জামায়াতের আমির মাওলানা ফয়জুল ইসলাম বলেন, আমরা কাউকে দলীয় সমর্থন দেইনি। ব্যক্তি উদ্যোগে নির্বাচন করলে জামায়াতের কিছু করার নেই। এদিকে, এক সময়ের জাতীয় পার্টির দুর্গ হিসেবে পরিচিত বিয়ানীবাজারে দলটির অবস্থা খুব নাজুক। ১০টি ইউনিয়নের মাত্র ১টিতে ব্যক্তি উদ্যোগে একজন প্রার্থী হলেও তার সঙ্গে জাতীয় পার্টির কেউ নেই। লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে তিনি শেওলা ইউনিয়নে নির্বাচন করছেন। ফয়জুর রহমান এসলু নামের ওই ব্যক্তিকে লাঙ্গল প্রতীক বরাদ্দ দিতে দলীয় প্রধান জিএম কাদের চিঠি দিয়েছেন। জাতীয় পার্টির প্রার্থিতা নিয়ে উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম লুকু জানান, আমরা দলীয়ভাবে বসে পরবর্তী করণীয় ঠিক করবো। এ ইউনিয়নে নৌকার শক্ত প্রার্থী রয়েছে বলে জেনেছি।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর