× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ১৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের সাফল্য প্রচারে বিজিএমইএ ও সিএনএন চুক্তি

অনলাইন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার
(১ মাস আগে) নভেম্বর ২৯, ২০২১, সোমবার, ৬:০৬ অপরাহ্ন

বাংলাদেশের রপ্তানি আয়ের প্রধান খাত তৈরি পোশাককে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে ব্র্যান্ডিং করবে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গণমাধ্যম সিএনএন ইন্টারন্যাশনাল কমার্সিয়াল (সিএনএনআইসি)। ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ শিরোনামে বাংলাদেশের পোশাক খাতের সাফল্য এবং সম্ভাবনার কথা বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরা হবে।

রোববার পোশাক শিল্পমালিকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ এবং সিএনএনআইসির মধ্যে এ-সংক্রান্ত একটি চুক্তি হয়েছে। বিজিএমইএ এবং সিএনএনআইসির স্থানীয় প্রতিনিধি স্পেলবাউন্ড কমিউনিকেশনস লিমিটেডের মধ্যে এই চুক্তি হয়।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান এবং বাংলাদেশ ফরেন ট্রেড ইনস্টিটিউটের (বিএফটিআই) প্রধান নির্বাহী জাফর উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

বিজিএমইএ’র এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এই চুক্তির ফলে বাংলাদেশের পোশাক খাত কীভাবে জাতীয় উন্নয়নে অবদান রাখছে এবং আগামীতে এ খাতের কী ধরনের অবদান রাখার সম্ভাবনা আছে- তা প্রচার করবে সিএনএন। পোশাক খাতের উঠে আসার গল্পও বলা হবে এতে। বিশেষ করে, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পোশাক খাতের কর্মপরিবেশের নিরাপত্তা উন্নয়ন, পরিবেশবান্ধব টেকসই উন্নয়ন ও শ্রমিকদের কল্যাণে নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরা হবে।

প্রতিযোগী সক্ষমতা, উদ্ভাবনী কার্যক্রম, পোশাকের মধ্যে বৈচিত্র্য আনার মতো বিষয়গুলোও থাকবে এর মধ্যে। সিএনএনের এই কার্যক্রমে সব ধরনের সহযোগিতা দেবে বিজিএমইএ।

রাজধানীর গুলশানে বিজিএমইএ অফিসে চুক্তি সই অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বিজিএমইএর সহসভাপতি শহিদউল্লাহ আজিম, বিএফটিআই পরিচালক ওবায়দুল আজম এবং স্পেলবাউন্ড কমিউনিকেশনস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ সাদেকুল আরেফিন উপস্থিত ছিলেন।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্য অনুযায়ী, মহামারি করোনার মধ্যেও ২০২০-২১ অর্থবছরে পণ্য রপ্তানি থেকে ৩৮.৭৬ বিলিয়ন ডলার আয় করে বাংলাদেশ, যা ছিল আগের বছরের চেয়ে ১৫.১০ শতাংশ বেশি। এই আয়ের মধ্যে ৮২ শতাংশই এসেছিল তৈরি পোশাক থেকে।
সেই ইতিবাচক ধারা চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরেও অব্যাহত রয়েছে। এই অর্থবছরের প্রথম চার মাসে (জুলাই-অক্টোবর) ১ হাজার ৫৭৫ কোটি (১৫.৭৫ বিলিয়ন) ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছে বাংলাদেশ। এই অঙ্ক গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ২২.৬২ শতাংশ বেশি। লক্ষ্যের চেয়ে আয় বেড়েছে ১৩.৩৩ শতাংশ। আর এই আয়ের ৮০.১৩ শতাংশ এসেছে তৈরি পোশাক থেকে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর