× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ১৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

সিলেটে বিএনপি’র বিভাগীয় সমাবেশ / ভয়কে জয় করে আন্দোলনে নামুন

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার

দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে বিভাগীয় সমাবেশ করেছে সিলেট বিএনপি। এতে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ছাড়াও গোটা বিভাগের বিএনপি’র নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। বিকালে সিলেটের রেজিস্ট্রারি মাঠে এ সমাবেশ হয়। সমাবেশে বিএনপি’র নেতারা ঘোষণা দেন; বেগম খালেদা জিয়া মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত তারা ঘরে ফিরবেন না। রাজপথে আন্দোলন তীব্র থেকে তীব্রতর করে তুলবেন। এদিকে দীর্ঘদিন পর বিএনপি’র শোডাউনকে ঘিরে মিছিলে মিছিলে সরব হয়ে উঠেছিলো সিলেট নগর। বেলা দুইটার কিছু সময় পর থেকে মিছিল সহকারে নেতাকর্মীরা দলে দলে এসে মিলিত হন সমাবেশস্থলে। খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কাফনের কাপড় পরে মিছিল করে জেলা যুবদল।
বিকাল ৩টার দিকে নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে সমাবেশস্থল কানায় কানায় ভরপুর হয়ে উঠে। সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ভয়কে জয় করতে হবে। ভয়কে জয় করেই আমাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছতে হবে। আন্দোলনের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে দেশের গণতন্ত্রকে, দেশের মানুষকে মুক্ত করতে হবে। এতেই হবে বিজয়। আর যতদিন পর্যন্ত বিজয় না আসবে ততোদিন পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। প্রতিটি পাড়ায় পাড়ায় তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। তিনি বলেন, দেশে সংবিধান হচ্ছে মানুষের জানমালের নিরাপত্তার জন্য। কিন্তু সংবিধানকে ব্যবহার করা হচ্ছে দেশের মানুষকে দমনপীড়নের জন্য। মানুষের নিরাপত্তার পরিবর্তে দেশে গুম-খুনের লাইসেন্স নেয়া হয়েছে। এখন সরকারের খুনের শিকার হচ্ছেন বিএনপি’র চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে তারা আইন প্রয়োগ করছে বেগম খালেদা জিয়াকে হত্যার জন্য। আমীর খসরু বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশ না যেতে যে ধারার সূচনা করা হয়েছে, সেটি নজিরবিহীন, বিশ্বের আর কোথাও নেই। আমাদের দাবি একটাই- বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি। সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট জয়নাল আবেদীন বলেন, কারাগারে কী হয়েছে আমরা জানি না। তবে সরকারই বেগম খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে। সরকার নির্বাহী বিভাগ দিয়ে সর্বোচ্চ আদালতে হস্তক্ষেপ করছে। এ কারণে আদালত থেকে বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাচ্ছেন না। ফলে আন্দোলন ছাড়া বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না। তিনি বলেন, সরকার চাইলে ৪০১ ধারা মোতাবেক বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দিতে পারে। কিন্তু উদ্দেশ্যমূলক ভাবে নানা অজুহাত দেখিয়ে তারা তাকে বিদেশ যেতে দিচ্ছে না। সিলেট মহানগর বিএনপি’র আহ্বায়ক আব্দুল কাইয়ূম জালালীর সভাপতিত্বে ও জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটির সিনিয়র সদস্য মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল ও এমরান আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব হাবিবুন্নবী খান সোহেল, বিএনপি’র চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, ড. ইনামুল হক চৌধুরী, তাহসিনা রুশদীর লুনা, সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, সিলেটের মেয়র ও বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী। এ ছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেত্রী শাম্মী আক্তার, কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কলিম উদ্দিন মিলন, জেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি আবুল কাহের শামীম, বর্তমান আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার, মহানগর বিএনপি’র সাবেক সভাপতি নাসিম হোসাইন, মহানগর বিএনপি’র সদস্য সচিব মিফতাহ সিদ্দিকী, সহ-সভাপতি ফরহাদ চৌধুরী শামীম, সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক আব্দুল আহাদ খান জামাল, শ্রমিক দল নেতা সুরমান আলী, মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক নজিবুর রহমান নজিব, জেলার সদস্য সচিব মকসুদ আহমদ ও জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন প্রমুখ। এদিকে সমাবেশ শেষে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুস্থতা কামনা করে মোনাজাত করা হয়।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর