× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ১৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

মনোহরগঞ্জে ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে বিতর্ক

বাংলারজমিন

মনোহরগঞ্জ (কুমিল্লা) প্রতিনিধি
৩ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে উপজেলা বিএনপি। অছাত্র ও বিবাহিতদের প্রাধান্য দিয়ে নতুন কমিটি গঠনের চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ রয়েছে।
জানা গেছে, ১ যুগের বেশি সময় ধরে মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই। গত ৩ বছর আগে আজিম-কালাম গ্রুপিং শুরু হওয়ার পর কুমিল্লা জেলা ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ ৫ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করেন। ওই কমিটি ঘোষণার পরপরই যুগ্ম সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদত্যাগ করেন। এরপর ৩ সদস্যের কমিটি ৩ বছর অতিবাহিত করেন। সাংগঠনিক ধারাবাহিকতায় গত ৩০শে অক্টোবর কুমিল্লা জেলা কমিটি তার অধীনস্থ সকল উপজেলা ও ইউনিয়ন কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে নতুন কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেয়। আর এই কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে মনোহরগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র ভেতর শুরু হয় টানাপোড়েন। বিশেষ করে বিএনপি’র চলমান সাবেক সংসদ সদস্য এম আনোয়ারুল আজিম ও কেন্দ্রীয় বিএনপি’র শিল্প বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম (চৈতি কালাম) অনুসারীদের গ্রুপিংয়ের প্রভাব ছাত্রদলেও দেখা দেয়।
উপজেলা কমিটিতে স্থান পেতে আজিম-কালাম পন্থিরা দু’ধারায় বিভক্ত হয়ে পড়ে। এমনকি ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে কালাম গ্রুপের মধ্যে উপ-গ্রুপের সৃষ্টি হয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি কালাম সমর্থিত উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক শাহ সুলতান খোকন তার অনুসারী শাহীন কবির সোহেলের নাম আহ্বায়ক হিসেবে প্রস্তাবনায় এনেছেন। অভিযোগ রয়েছে সোহেল বিবাহিত। স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বলেন, অভিযোগ যদি সত্য প্রমাণিত হয় তাহলে গঠনতন্ত্র অনুসারে সোহেল ছাত্রদলে নেতৃত্বের সক্ষমতা হারাবেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সিনিয়র সহ-সভাপতিসহ উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক ও হাসনাবাদ ইউপির আহ্বায়ক আব্দুল মুনাফ লিখিত অভিযোগ করেছেন কুমিল্লা বিভাগীয় সাংগঠনিক টিম প্রধান বরাবর। এতে উল্লেখ করা হয়, মনোহরগঞ্জে যাকে ছাত্রদলের আহ্বায়ক করার জন্য নাম দেয়া হয়েছে সে বিবাহিত। অভিযোগের সঙ্গে প্রমাণও জমা দেয়া হয়েছে বিভাগীয় টিমসহ কেন্দ্রীয় ছাত্রদল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নেতৃবৃন্দের কাছে।
উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক কমিটির সভাপতি কামাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান হিরা জানান, ‘আমাদের কাছে সুস্পষ্ট প্রমাণ রয়েছে প্রস্তাবিত আহ্বায়ক শাহীন কবির সোহেল বিবাহিত, আর বিবাহিত লোক দিয়ে কমিটি গঠন ছাত্রদলের গঠনতন্ত্র পরিপন্থি। তাই আমরা লিখিত অভিযোগ করেছি যাতে মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলে একটি স্বচ্ছ ও সর্বজন স্বীকৃত কমিটি আসে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর