× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২১ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার , ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানা /১০০ দিনে পৌনে ২ কোটি টাকার মাদক উদ্ধার

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ থেকে
৩ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার

কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ গত ১০০ দিনে ১ কোটি ৭৫ লাখ সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকার মাদকসহ ২৬৬ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে। এ ছাড়া সাজাপ্রাপ্ত ৮১ জন আসামিসহ বিভিন্ন গ্রেপ্তারি পরোয়ানায় ৬৩৪ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। যা বিগত ১০০ দিনের তুলনায় দ্বিগুণ। গত ১০০ দিন আগে শাহ কামাল আকন্দ বর্তমান কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি হিসেবে যোগদান করেন। জেলা পুলিশের মূল্যায়নে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি প্রতি মাসেই সেরা ওসি হিসেবে পুরস্কৃত হচ্ছেন। অনুসন্ধানে এমনি তথ্য মিলেছে। আইনশঙ্খলা উন্নয়নে ও পুলিশি সেবার মান বাড়াতে গত ২৯শে নভেম্বর রাতে ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ। প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বাবুল হোসেনের পরিচালনায় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ আইনশৃঙ্খলা উন্নয়নে আরও কি করণীয় সম্পর্কে আলোচনা করেন এবং পরামর্শ দেন।
সাংবাদিকরা যানজট নিরসনে ফুটপাথ দখলমুক্ত করা, রাস্তার ওপর গাড়ি স্ট্যান্ড উচ্ছেদ করা, মাদক ও চুরি, ছিনতাই বন্ধে আরও পুলিশি তৎপরতা বাড়ানোর পরামর্শ দেন। এ সময় ওসি শাহ কামাল আরও জানান, নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে ৩৮৩টি। এর মধ্যে নিষ্পত্তি করা হয়েছে ৩৯৮টি, অপমৃত্যু মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে ২৫টি। এর মধ্যে অপহৃত ভিকটিম ও নিখোঁজ উদ্ধার করা হয়েছে ৩৫ জন। অপরদিকে ডাকাতি প্রস্তুতি মামলায় ৩৯ জন, দস্যুতা প্রস্তুতি মামলায় ১৩ জন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলার আসামি ২৭ জন, চুরি মামলার আসামি ১৮ জন, অপহরণ মামলার আসামি ৭ জন, চোরাচালান ৯ জন, খুন মামলার আসামি ১৩ জন, ছিনতারী ২০ জন, নিয়মিত মামলার আসামি ৩৬৪ জনসহ ৫২০ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। অপরদিকে জিআর ও সিআর পরোয়ানামূলে ৫৫৩টি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিষ্পত্তি করা হয়। একই সঙ্গে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক ৮১টি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিষ্পত্তিসহ ৬৩৪টি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিষ্পত্তি হয়েছে। যা অতীতের তুলনায় দ্বিগুণ। নগরবাসীর মতে, ওসি শাহ্‌ কামাল আকন্দ কোতোয়ালি মডেল থানায় যোগদানের পর থেকে কোতোয়ালি থানা পুলিশ ও ফোর্সদের মধ্যে আচরণে পরিবর্তন এসেছে। থানায় জিডি করতে এখন হয়রানি স্বীকার হতে হয় না ও টাকা ছাড়া জিডি লিপিবদ্ধ করা যায়। মামলা রুজু করতে এখন হয়রানির শিকার হতে হয় না। যা উল্লেখযোগ্য বিষয়। সবশেষে ওসি শাহ কামাল আকন্দ বিভাগীয় নগরীর আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে সাংবাদিক মহলসহ সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেছেন। ওসি শাহ কামাল বলেন, এসব সাফল্যের পিছনে অবদান আমার অভিভাবক পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামানের। তার নেতৃত্বে ও দিকনির্দেশনায় কোতোয়ালি থানার সর্বস্তরের কর্মকর্তা ও প্রতিটি পুলিশ সদস্যের প্রচেষ্টায় সম্ভব হচ্ছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর