× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার , ১৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

যেখানে ১ ভোটও পায়নি নৌকা

অনলাইন

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি
(১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৩, ২০২১, শুক্রবার, ৩:০১ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চিলমারীর চরের একটি কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে কোন ভোট পড়েনি। এখানে ভোট দিয়েছেন ১৪৪৬ জন। আবার একই ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রে জাতীয় পার্টি সমর্থিত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী মো. জহুরুল ইসলাম ভোট পেয়েছেন মাত্র ২টি। তার নিজ পরিবারের সদস্যদের ভোটও তিনি পাননি।

মো. নুরুজ্জামান নামে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তিনিও ভোট পেয়েছেন মাত্র ৪টি। এ ইউনিয়নে নৌকার পরাজয় হয়েছে। বিজয় পেয়েছেন মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত ২৮শে নভেম্বর অনুষ্ঠিত হওয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দৌলতপুরের চিলমারী ইউনিয়নের জোতাশাহী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে কোন ভোট পড়েনি। নৌকা প্রতীকে ১টিও ভোট না পড়ায় এ নিয়ে চরম হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগ দলীয় নেতৃবৃন্দ। জোতাশাহী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ১৫৪৬টি।
এ কেন্দ্রে মোট ভোট পরেছে ১৪৪৬টি, শতকরা ৯৪ ভাগ। ১৪৪৬টি ভোটের মধ্যে ১৪২৭ ভোট পেয়েছেন মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান। বাকি ১৯টি ভোট বাতিল হয়েছে। নৌকা প্রতীকের মতো এ কেন্দ্রে লাঙ্গল প্রতীক ও আনারস প্রতীকও ভোট শুন্য ছিল।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেলে রিটার্নিং অফিসারের বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সৈয়দ আহমেদ।

জোতাশাহী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট শুন্য হওয়ার বিষয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সৈয়দ আহমেদ জানান, ওই কেন্দ্রসহ আরো বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে থেকে নৌকার এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে। মোটরসাইকেলের লোকজন ভোট মেরে নিয়েছে। এসব ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রিটার্নিং অফিসারের নিকট অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

চিলামারী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীক নিয়ে সৈয়দ আহমেদ, মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান, জাতীয় পার্টি সর্থিত লঙ্গল প্রতীক নিয়ে মো. জহুরুল ইসলাম এবং আনারস প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নুরুজ্জামান নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নৌকাকে হারিয়ে প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান বিজয়ী হয়েছেন।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
শামীম হাসান
৫ ডিসেম্বর ২০২১, রবিবার, ৮:৫৬

এই কেন্দ্রের ভোট সুষ্ঠু হয়েছে বলে মনে হচ্ছে। বাংলাদেশের ভোটের কালচারে এটাই ধ্রুব সত্য। "আমি জিতলে, ভোট সুস্ট" "আমি হারলে, ভোট অ-সুস্ট"

Habib bappy
৪ ডিসেম্বর ২০২১, শনিবার, ৫:১০

খুবই স্বাভাবিক। এটাই হবে আগামী তে সর্বত্র ফেয়ার ভোট হলে

K M Ansar
৩ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ১১:০০

ও ভাই পাগলের মেলা... মেলা।

মোরশেদ
৩ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ১০:০০

নৌকার এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে এটা হাইস্যকর।

mon pagla
৩ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ৯:১৪

সুখকর সংবাদ।

মাসুদ
৩ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ৪:২৩

এইকেন্দ্রের ভোট সুষ্ঠু হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।

রাকিব
৩ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ৩:০৫

'' ওই কেন্দ্রসহ আরো বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে থেকে নৌকার এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে'' ? এই আমলে এই কথা বিশ্বাস করবে এমন পাগল ১ টাও সারা বাংলাদেশে আছে?

অন্যান্য খবর