× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১৯ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার , ৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

মেট্রোরেল / ১২ই ডিসেম্বর আগারগাঁও পর্যন্ত পারফরমেন্স টেস্ট

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
৪ ডিসেম্বর ২০২১, শনিবার

স্বপ্নের মেট্রোরেল। আগামী বছরের ডিসেম্বরে যাত্রী নিয়ে উড়াল পথে চলাচল করবে। এরইমধ্যে উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশের কাজ শেষ দিকে। আগামী ১২ই ডিসেম্বর দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও অংশে ট্রেনের পরীক্ষামূলক চলাচল শুরু হবে। গতকাল গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এন এম সিদ্দিক। তিনি জানান, আগেই ঘোষণা দেয়া হয়েছে, আমরা বিজয়ের মাসে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেলের পারফরম্যান্স টেস্ট করবো। রেললাইন, বৈদ্যুতিক সঞ্চালন লাইন ও স্টেশনের যাবতীয় প্রস্তুতি ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। প্রস্তুতি ছিল আগামী ১৫ থেকে ১৬ই ডিসেম্বরের মধ্যে করার।
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান থাকার কারণে আমরা এই তারিখ এগিয়ে এনেছি। ১২ অথবা ১৩ই ডিসেম্বরের মধ্যে করার প্রস্তুতি নিয়েছি। তারিখ ও সময়টি আরও নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে জানাবো। তিনি বলেন, ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল চলাচল শুরু করা যাবে। সেভাবেই কাজ চলছে। নির্ধারিত সময়েই পুরো অংশে ট্রেন চলাচল করতে পারবে। আগামী বছরের ডিসেম্বরে দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত যাত্রী পরিবহন শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে। এর আগে গত ২৭শে আগস্ট দিয়াবাড়ি থেকে মিরপুরের পল্লবী পর্যন্ত পরীক্ষামূলক ট্রেন চালানো হয়েছিল। ২৯শে নভেম্বর দুপুরে দিয়াবাড়ি থেকে মিরপুর ১০ নম্বরের কাছে ৬ নম্বর রেলস্টেশন পর্যন্ত ছয় বগির একটি ট্রেন চালানো হয়। ওইদিন দুপুর ১টার দিকে মেট্রোরেলের এ অংশে ট্রেন পরিচালনা করা হয়। ট্রেনের গতি ছিল ঘণ্টায় পাঁচ কিলোমিটার। ২০১৬ সালে উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটারের এমআরটি-৬ লাইনের নির্মাণকাজ শুরু হয়। ডিএমটিসিএল’র সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, এ প্রকল্পের সমন্বিত অগ্রগতি হয়েছে ৭২ শতাংশ। মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এ পর্যন্ত আট সেট ট্রেন দেশে এসেছে। এরমধ্যে সাতটি ডিপোতে পৌঁছেছে। একটি সেট এখনো মোংলা বন্দরে আছে। ঢাকার প্রথম মেট্রোরেল লাইনের জন্য ২৪ সেট ট্রেন তৈরি করে দিচ্ছে জাপানের কাওয়াসাকি-মিতসুবিশি কনসোর্টিয়াম। দুই পাশে দুটি ইঞ্জিন আর চারটি কোচের সমন্বয়ে ট্রেনের সেটগুলো জাপানেই তৈরি হয়েছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর