× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ৮ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ওমিক্রনের বিরুদ্ধে ৪০ গুণ কম সুরক্ষা দেয় ফাইজারের টিকায় সৃষ্ট এন্টিবডি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৮, ২০২১, বুধবার, ১১:৪০ পূর্বাহ্ন

সাধারণ করোনা স্ট্রেইনের বিরুদ্ধে ফাইজারের টিকায় সৃষ্ট এন্টিবডি যে সুরক্ষা দেয়, ওমিক্রনের বিরুদ্ধে তার ৪০ ভাগ কম সুরক্ষা দেয়। দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া নতুন এই ভ্যারিয়েন্টটির প্রথম ল্যাব টেস্টে এমন ফলাফলই পাওয়া গেছে। প্রথম থেকেই আশঙ্কা করা হচ্ছিল, এই ভ্যারিয়েন্ট শরীরের এন্টিবডিকে ফাঁকি দিতে সক্ষম। নতুন পরীক্ষার মধ্য দিয়ে সে আশঙ্কাই সত্যি প্রমাণিত হলো।

তবে আফ্রিকা হেলথ রিসার্চ ইনস্টিটিউটের ভাইরাস গবেষক প্রফেসর অ্যালেক্স সিগাল আশার বাণীও শোনালেন। তিনি জানান, যারা টিকা নিয়েছেন এবং কোভিডেও আক্রান্ত হয়েছেন তাদের শরীরে ওমিক্রনের বিরুদ্ধে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে অধিক কার্যকর এন্টিবডি পাওয়া গেছে। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে, টিকার বুস্টার ডোজ হয়তো ওমিক্রনের বিরুদ্ধে সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারবে।

স্কাই নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এন্টিবডি ফাঁকি দিতে বেটা ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় ওমিক্রন ৫ থেকে ১০ গুন বেশি সক্ষম। বেটা ভ্যারিয়েন্টও দক্ষিণ আফ্রিকাতেই শনাক্ত হয়েছিল এবং টিকার সুরক্ষাকে ফাঁকি দেয়ার জন্য এই ভ্যারিয়েন্টও পরিচিত ছিল।
প্রফেসর সিগাল জানান, খুব সম্ভবত ওমিক্রন একইসঙ্গে অন্য ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় অধিক সংক্রামক এবং শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে ফাঁকি দিতেও অধিক সক্ষম।

তবে এই গবেষণাটি হয়েছে মাত্র ১২ জনের রক্তের নমুনা থেকে, তাদের সকলেই কোভিডের টিকা নিয়েছিলেন। এতো অল্প মানুষের নমুনা থেকে এই ভ্যারিয়েন্টকে পুরোপুরি বুঝতে পারা সম্ভব নয়। তাই বাস্তব দুনিয়ায় ওমিক্রন কীভাবে ছড়াবে এবং টিকার সুরক্ষাকে ফাঁকি দিয়ে মানুষকে আক্রান্ত করবে তা বুঝতে আরও সময় লাগবে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর