× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১৭ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার , ৩ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

প্যানডোরা পেপারস নিয়ে মতামত না দেয়াই উত্তম: অর্থমন্ত্রী

অনলাইন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার
(১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৮, ২০২১, বুধবার, ৫:৫১ অপরাহ্ন

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, প্যানডোরা পেপারসে যাদের নাম এসেছে, তাদের সম্পর্কে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) হাইকোর্ট ডিভিশনে তথ্য জমা দিয়েছে। এখন বিষয়টি হাইকোর্টের এখতিয়ারে আছে। মামলাটি চলমান আছে। আমি মনে করি, এ সময়ে বিষয়টি নিয়ে আমার মতামত দেয়া যুক্তিযুক্ত হবে না। আর না দেয়াই উত্তম।

বুধবার অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি এবং সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভা শেষে ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন। ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে সভায় সভাপতিত্ব করেন অর্থমন্ত্রী।

ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে অর্থমন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হয়- প্যানডোরা পেপারসে দেশের চারজন ব্যবসায়ীর নাম এসেছে। তাদের মধ্যে একজন খ্যাতিমান ব্যবসায়ীও রয়েছে, এতে কি আপনি আশ্চার্য হয়েছেন?

জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘যাদের নাম এসেছে, দুদক তাদের নামের তালিকা হাইকোর্টে জমা দিয়েছে। বিষয়টি হাইকোর্টের এখতিয়ারে।
মামলাটি চলমান। আমি মনে করি, এ বিষয়ে আমার মতামত দেয়া যুক্তিযুক্ত হবে না। যেহেতু বিষয়টি একটি মামলার আওতায় চলে গেছে এবং এটি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে আমার মতামত না দেয়াই উত্তম।

গণমাধ্যমে নতুন করে আরও কয়েকজনের নাম আসাদের বিষয়ে আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ বিষয়গুলো পত্রিকায় যেভাবে আসছে, সেগুলো আরও অনুসন্ধান করে দুদক যদি মনে করে হাইকোর্টে যাওয়া দরকার, বিচার শুরু করার জন্য সে কাজটি তারা করে যাচ্ছেন। আমার মনে হয়, আমি মতামত দিলে তাদের কাজে লাগবে না। তাই আমি মতামত দেবো না। আপনারা অপেক্ষা করুন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, মামলার বিচার শেষ না হওয়া পর্যন্ত ডিটেইলসে আপডেট দেয়ার কোনো সুযোগ নেই। প্রথমে ৪৩ জন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের তালিকা আসে। সে তালিকা হাইকোর্টে দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে যা আসবে, সেটাও দেয়া হবে পর্যায়ক্রমে। আমি বিশ্বাস করি, ন্যায় বিচার পাবো। আদালত যা সিদ্ধান্ত দেবেন, তা মেনে নেবো।

সভা শেষে অর্থমন্ত্রী জানান, সভায় ১৭টি প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়। প্রস্তাবগুলোর মধ্যে ১৬টি অনুমোদন পেয়েছে। একটি প্রস্তাব ফেরত পাঠানো হয়েছে।

অনুমোদিত ১৬ প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে, বিদ্যুৎ বিভাগের পাঁচটি, শিল্প মন্ত্রণালয়ের চারটি, কৃষি মন্ত্রণালয়ের তিনটি, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের দুটি, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের একটি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি এবং সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের একটি।

১৭টি প্রস্তাবে মোট অর্থের পরিমাণ ছিল ২২ হাজার ১৫৬ কোটি ৯৭ লাখ ৪১ হাজার ৫০৪ টাকা। তবে অনুমোদিত ১৬ প্রস্তাবে অর্থের পরিমাণ ২২ হাজার দুই কোটি ১৭ লাখ ৪১ হাজার ৫০৪ টাকা।

এরমধ্যে জিওবি হতে ব্যয় হবে ২০ হাজার ২৫৮ কোটি ৬৭ লাখ ৫৭ হাজার ৮৩৩ টাকা। বাকি এক হাজার ৮৯৮ কোটি ২৯ লাখ ৮৩ হাজার ৬৭১ টাকা দেশীয় ব্যাংক ও এডিবি হতে ঋণ।

অনুমোদিত ১৬ ক্রয় প্রস্তাব

শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) ৩০ হাজার মেট্রিকটন ফসফরিক অ্যাসিড ২১৫ কোটি ৪৪ লাখ ৩৮ হাজার টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে মেসার্স সান ইন্টারন্যাশনাল এফজেডই, ইউএই (লোকাল এজেন্ট: অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ ইনপুট, ঢাকা) থেকে ১০ হাজার মেট্রিকটন এবং মেসার্স জেনট্রেড এফজেডই, ইউএই (লোকাল এজেন্ট: মেসার্স দেশ ট্রেডিং করপোরেশন, ঢাকা) থেকে ২০ হাজার মেট্রিকটন ফসফরিক এসিড কেনা হবে।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) মাধ্যমে ৩০ হাজার টন (১০ শতাংশের বেশি) বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার ২৪৮ কোটি ১০ লাখ ৫৬ হাজার ৪১৫ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফার্টিগ্লোব ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেড থেকে রাষ্ট্র পর্যায়ে চুক্তির মাধ্যমে এ সার আমদানি করা হবে।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের মাধ্যমে ৩০ হাজার টন (১০ শতাংশের বেশি) ব্যাগড প্রিল্ড ইউরিয়া সার ২৫০ কোটি ৯৩ লাখ ৮৬ হাজার ৯১৫ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়। কাতারের মুনতাজাত থেকে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির মাধ্যমে এ সার আমদানি করা হবে।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের মাধ্যমে ৩০ হাজার টন (১০ শতাংশের বেশি) বাল্ক গ্র্যানুলার (অপশনাল) ইউরিয়া সার ২৪৮ কোটি ১০ লাখ ৫৬ হাজার ৪১৫ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়। সৌদি আরবের সৌদি বেসিক ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (এসএবিআইসি) থেকে রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে এ সার আমদানি করা হবে।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অধীন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কর্তৃক ‘কুমিল্লা (টমছম ব্রিজ)-নোয়াখালী (বেগমগঞ্জ) আঞ্চলিক মহাসড়ক ৪-লেনে উন্নীতরণ’ প্রকল্পের প্যাকেজ নং-পিডব্লিউ-৫-এর পূর্ত কাজ হাসান টেকনো বিল্ডার্স লিমিটেডের নিকট থেকে ৩৫ কোটি ২৪ লাখ ৪৩ হাজার ১৬১ টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেয়া হয়।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক ‘বাংলাদেশ রেলওয়ের রোলিং স্টক অপারেশন উন্নয়ন (রোলিং স্টক সংগ্রহ)’ প্রকল্পের প্যাকেজ নং-জিডি-৪-এর আওতায় ৫৮০টি মিটারগেজ ওয়াগন চীনের সিআরআরসি শানডং কোম্পানি লিমিটেড থেকে ৩৯৭ কোটি ৭২ লাখ ৪৬ হাজার ৫০৪ টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক ‘বাংলাদেশ রেলওয়ের রোলিং স্টক অপারেশন উন্নয়ন (রোলিং স্টক সংগ্রহ)’ প্রকল্পের প্যাকেজ নং-জিডি-৫-এর আওতায় ৪২০টি ব্রডগেজ ওয়াগন ভারতের হিন্দুস্থান ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড থেকে ২৮৮ কোটি ৫৪ লাখ ৫৯ হাজার ৯২২ টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) কর্তৃক গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কাউলতিয়া এলাকায় ৪২.৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন বর্জ্য হতে বিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনে চীনের ক্যানভস এনভায়রনমেন্টাল ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানিকে ১৪ হাজার ৪০৮ কোটি এক লাখ টাকায় অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) কর্তৃক পাবনার সুজানগর উপজেলাধীন সাগরকান্দি ইউনিয়নে ৬০ মেগাওয়াট ক্ষমতার সোলার পার্ক প্রকল্প স্থাপনে বাংলাদেশ-চায়না রিনিউয়েবল এনার্জি কোম্পানিকে এক হাজার ৬৪৯ কোটি ১২ লাখ টাকায় অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) কর্তৃক চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলাধীন কৃষ্ণপুর মৌজায় ৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতার সোলার বিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনে সিঙ্গাপুরের সাইকেলিক্ট এনার্জি প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে ২০ বছর মেয়াদে এক হাজার ৩২২ কোটি ৪০ লাখ টাকার চুক্তি সম্পাদনের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) কর্তৃক ভোলা জেলার মনপুরা উপজেলার মনপুরা দ্বীপে তিন মেগাওয়াট ক্ষমতার সোলার-ব্যাটারি-ডিজেল সম্বলিত হাইব্রিড বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের জন্য ওয়েস্টার্ন রিনিউয়েবল এনার্জি প্রাইভেট লিমিটেডকে ৪৫৯ কোটি টাকায় অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) কর্তৃক সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় ৬৮ মেগাওয়াট ক্ষমতার সোলার পার্ক প্রকল্প স্থাপনে বাংলাদেশ-চায়না রিনিউয়েবল এনার্জি কোম্পানি প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে ২০ বছর মেয়াদে এক হাজার ৭৯৮ কোটি ৪৮ লাখ টাকায় চুক্তি সম্পাদনের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর কর্তৃক চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচি (পিইডিপি-৪) এর আওতায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিতরণের লক্ষ্যে ওয়ালটন ডিজিটেক ইন্ডাস্ট্রিজ থেকে ১০টি লটে ৪১ হাজার ল্যাপটপ ২০১ কোটি ৬৫ লাখ ১৯ হাজার ২৩২ টাকায় এবং গ্লোবাল ব্রান্ড প্রাইভেট লিমিটেড থেকে ১০টি লটে ৪১ হাজার স্পিকার ১৪ কোটি ৫২ লাখ ৫৭ হাজার ৪৪০ টাকায় অর্থাৎ ৪১ হাজার ল্যাপটপ এবং ৪১ হাজার স্পিকার সর্বমোট ২১৬ কোটি ১৭ লাখ ৭৬ হাজার ৬৭২ টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) কর্তৃক কানাডার কানাডিয়ান কমার্সিয়াল করপোরেশন থেকে এক লটে ৩০ হাজার (১০ শতাংশের বেশি) টন এমওপি সার ১৪৬ কোটি ৮০ লাখ ৩৫ হাজার টাকায় আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) কর্তৃক কানাডার কানাডিয়ান কমার্সিয়াল করপোরেশন থেকে দুই লটে ৩০ হাজার (১০ শতাংশের বেশি) টন এমওপি সার ১৫৯ কোটি তিন লাখ ৭১ হাজার ২৫০ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) কর্তৃক রাশিয়ার জেএসসি ফরেন ইকোনমিক এসোসিয়েশন ‘প্রডিন্টরগ’ থেকে এক লটে ৩০ হাজার (১০ শতাংশের বেশি) টন এমওপি সার ১৫৯ কোটি তিন লাখ ৭১ হাজার ২৫০ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Mahbub
৮ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার, ৯:৪৬

কিছু দিন আগে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মাননীয় অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন অর্থ পাচারের কথা তিনি জানেন না, নামের লিস্ট পেলে ব্যবস্থা নিবেন, এখন বলছেন বিচারাধীন বিষয় নিয়ে মন্তব্য করা ঠিক হবে না, সত্যিই সেলুকাস।

অন্যান্য খবর