× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, রবিবার , ৯ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ব্রহ্মপুত্রের চরে একসঙ্গে ১০ ফসল, কৃষকের মুখে হাসি

বাংলারজমিন

সাওরাত হোসেন সোহেল, চিলমারী (কুড়িগ্রাম) থেকে
৯ ডিসেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার

কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলাটি বন্যা ও ভাঙন কবলিত। প্রতি বছর হাজার হাজার কৃষক  তাদের পুঁজি হারায়। আবারো শক্ত হাতে ধরে কাণ্ডারি। এভাবেই চলছে বছরের পর বছর। প্রতি বছর চলে ভাঙা-গড়ার খেলা। সর্বস্বান্ত চরাঞ্চলের মানুষ তবুও থেমে থাকে না, হাসি মুখে নতুন চরে ফলায় ফসল। দেখে আলো, বাঁধে আবারো স্বপ্ন। বুক ভরা আশা নিয়ে ভাঙন, বন্যা, খরা, উৎপাদিত পণ্যের মূল্য কমসহ নানা দুর্যোগের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে একসঙ্গে এখন কয়েক প্রকার ফসলের চাষ করছেন ব্রহ্মপুত্র অববাহিকার কৃষকরা।
এসব ফসলে কোনো প্রকার রাসায়নিক সার বা কীটনাশক ব্যবহার করা প্রয়োজন হয় না। পর্যায়ক্রমে ফসল তোলায় ফলনও হচ্ছে বাম্পার। তাই কৃষকের মুখে ফুটেছে যেন বিজয়ের হাসি। সরজমিন খামারবাসপাতারি, বজড়াদিয়ারখাতা, দুশবিঘা, ফেইসকা, নটারকান্দি, শাখাহাতিসহ প্রায় অর্ধশতাধিক চরে এ দৃশ্য দেখা গেছে।
চরাঞ্চলের কৃষক শুধু ফসল ফলানোর অপেক্ষায় থাকেন বছরজুড়ে। তাই বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পরপরই তারা কোমর বেঁধে নামেন, জেগে ওঠা চরে। অপেক্ষাকৃত সমতলসহ উঁচু-নিচু জমিতে রবিশস্য ও নদের কিনারে লাগান, বোরোসহ বিভিন্ন জাতের ধান। বিস্তীর্ণ বালুচরে পলির আস্তরণ পড়ে প্রতি বছর যেন জমির উর্বরতা বেড়ে যায়। চরাঞ্চলের মানুষের কাছে জেগে ওঠা চরগুলো যেন সোনার চেয়েও দামি। একই জমিতে বেশ কয়েক প্রকার ফসল একসঙ্গে ফলাচ্ছেন তারা। এসব ফসলের মধ্যে রয়েছে- ধান, বাদাম, চিনা, কাউন, মিষ্টি আলু, বিভিন্ন প্রকার কালাই, ভুট্টা, গম, পিয়াজ, রসুন ও শীতকালীন শাক-সবজি। চরাঞ্চলের কৃষকরা বলেন, ভাঙন আমাদের সর্বস্বান্ত এবং বন্যা আমাদের ভাসালেও জেগে ওঠা চর ও পলি পড়ে উর্বর জমি আমাদের সুখ দেখায়। এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার কুমার প্রণয় বিষান দাশ বলেন, এবার চিলমারীর চরাঞ্চলে রবি ফসলের চাষ হয়েছে প্রায় ৫ হাজার হেক্টর জমিতে। তারা একই জমিতে একসঙ্গে ১০-১২ প্রকারের ফসল ফলাচ্ছেন। এ ফসল রোপণের ক্ষেত্রে আমরা কৃষকদের নানা ধরনের পরামর্শ দিচ্ছি। আমাদের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারাও সার্বক্ষণিক কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে আসছেন।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর