× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৯ মে ২০২২, রবিবার , ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

নাসিক নির্বাচনে কোনো শঙ্কা নেই: সিইসি

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে
১৩ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রস্তুতি অনেক আগে থেকে শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। এখানে দু’টো বিষয় কাজ করে। একটা হলো প্রার্থীদের নির্বাচনের সময় আচরণ এবং আচরণবিধির প্রতি তাদের আস্থা এবং সম্মান প্রদর্শন। তারপরেই আসে প্রশাসনের ভূমিকা। তাদের সমন্বয়ের মাধ্যমে সকলের সঙ্গে বোঝাপড়া করেই এই নির্বাচন পরিচালনা করতে হয়। যারা নির্বাচন কমিশনার আছেন তারা জেলা প্রশাসনের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখেন।
বুধবার বিকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে নাসিক নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
সিইসি বলেন, নির্বাচনের যে কয়েকদিন বাকি আছে আমার মনে হয় পরিবেশ আরও সুন্দর হবে। প্রার্থীদের এজেন্টদের নিয়ে অনেক সময় কথা ওঠে।
এজেন্টদের ঢুকতে দেয়া হয় না বা তাদের বের করে দেয়া হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট যারা আছেন তাদের এ বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। বিশেষ করে রিটার্নিং অফিসার যারা আছেন তারা যেন সকলকে আশ্বস্ত করেন। সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রশ্নে এজেন্টদের উপস্থিতি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। অনেক সময় এজেন্ট পাঠানো হয় না সেটা ভিন্ন কথা। তবে এজেন্টদের প্রটেকশন দেয়া প্রিজাইডিং অফিসারদের দায়িত্ব। যদি ম্যাজিস্ট্রেটদের কাছে কেউ অভিযোগ করেন তাহলে তারা সেটা সুরাহা করবেন।  
তিনি আরও বলেন, নির্বাচনের ভোট গণনার সময় খেয়াল রাখতে হবে সেখানে প্রার্থীর এজেন্ট থাকবে এবং আপনাদের কর্মকর্তারা থাকবে। এটা যেন সকলের সামনে করা হয় এবং নির্ধারিত জায়গায় যেন এজেন্টদের স্বাক্ষর গ্রহণ করা হয়। একেবারে স্বচ্ছভাবে যেন এই ভোট গণনা হয় সেটা নিশ্চিত করতে হবে। ভোট গণনার পরে ফল ঘোষণার পর অনেকে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চেষ্টা করে। এ বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।
সিইসি বলেন, নির্বাচনের পরে এখান থেকে আমাদের ডিসি ও এসপি সাহেব চলে যাবেন। তারা কিন্তু এখানে শেষ নির্বাচন দেখে চলে যাবেন। এরপরে কিন্তু তারা আর কোনো নির্বাচন দেখার সুযোগ পাবেন না। তারা সুষ্ঠু পরিবেশে নির্বাচন পরিচালনা করবেন বলে বিশ্বাস করি।  
তিনি বলেন, এতোদিন নারায়ণগঞ্জে যে পরিস্থিতি ছিল আমাদের বিভিন্নভাবে দোষারোপ করা হয়। আমি মনে করি নারায়ণগঞ্জের এই নির্বাচন একটা উদাহরণ সৃষ্টি হবে। পরবর্তীকালে যে নির্বাচনগুলো হবে সেখানে এই নির্বাচন প্রভাব ফেলবে। এখানে পৌরসভা নির্বাচন হয়েছে উপজেলা নির্বাচন হয়েছে সবগুলো নির্বাচনে আমরা সন্তুষ্ট। আমি আপনাদের সাফল্য কামনা করছি এবং সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
এর আগে দুপুরে শহরের দেওভোগে মগ্যান বালিকা উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজে সিটি নির্বাচনের দায়িত্বে নিয়োগকৃত প্রিজাইডিং অফিসারদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কোনো শঙ্কা নেই। অবাধ সুষ্ঠু শান্তিপূর্ণ পরিবেশে মানুষ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। যারা রাজনীতি করেন তারা তাদের মতো করে অনেক কথা বলতে পারেন, আমরা আমাদের মতো করে কাজ করি। এতে যদি তাদের কোনো সুবিধা হয়-হতে পারে, তবে আমাদের পক্ষ থেকে কোনো রকমের শৈথিল্য নেই।
এ সময় সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের সংবাদ সম্মেলন আচরণবিধি ভঙ্গের মধ্যে পড়েছে কি না সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, সংসদ সদস্যরা প্রচারণায় অংশ নিতে পারবে না। প্রচারণায় নামলে আচরণবিধি লঙ্ঘন হবে। শামীম ওসমানের সংবাদ সম্মেলনটি আচরণবিধি ভঙ্গের মধ্যে পড়ে। তবে তাকে নোটিশ বা শাস্তির আওতায় আনতে হবে এমন আচরণবিধি লঙ্ঘন করেননি তিনি।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
জামশেদ পাটোয়ারী
১৪ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ৬:০২

আপনি যতদিন আছেন জেতার ব্যাপারে সরকারী দলেরও কোন শঙ্খা নাই।

Anisur rahman , Otta
১৩ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৬:৫৯

Don't have any trust.

Md. Harun al-Rashid
১৩ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:৩০

শংকা থাকলেই বা কি যায় আসে। দায়তো রাজনৈতিক দল ও জনগনের ঘাড়ে চাপিয়ে আত্মতুষ্টিতে গদগদ ।

nasir uddin
১৩ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৮:৩৬

Yes, you are damn right.

Shobuj Chowdhury
১৩ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ২:৪৪

Will there be an election or a game?

অন্যান্য খবর