× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ১৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

বিএনপির রাজনীতি করাটাই যেন তাজমেরী ইসলামের অপরাধ: ইউট্যাব

অনলাইন

নিজস্ব সংবাদদাতা
(২ সপ্তাহ আগে) জানুয়ারি ১৪, ২০২২, শুক্রবার, ১১:০১ পূর্বাহ্ন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের সাবেক অধ্যাপক এবং বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক তাজমেরী এস এ ইসলামকে গ্রেফতার লজ্জাজনক মন্তব্য করে ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সংগঠন- ইউনিভার্সিটি টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইউট্যাব)।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি ২০২২) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ দাবি জানিয়ে ইউট্যাবের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম ও মহাসচিব অধ্যাপক ড. মো: মোর্শেদ হাসান খান বলেন, একটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলায় অধ্যাপক তাজমেরী এস এ ইসলামকে তার বাসা থেকে গ্রেফতারের পর বৃহস্পতিবার আদালতে নেয়া হলে জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে প্রেরণের ঘটনা অত্যন্ত লজ্জাজনক এবং উদ্বেজনক। আমরা শিক্ষক সমাজ এহেন কর্মকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

ইউট্যাবের নেতৃদ্বয় বলেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতার জন্য সর্বনাশা নীতি অবলম্বন করেছে। এই নীতির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যই হচ্ছে হুকুমবাদ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে চিরদিনের জন্য বিরোধী দল ও ভিন্ন মতের অস্তিত্বের অবসান ঘটানো। এই সরকার বিরোধীদল দমনে হয়রানি, জুলুম-নির্যাতন, মিথ্যা মামলা, গ্রেফতার ইত্যাদিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। তাদের লক্ষ্য পূরণে বিএনপিসহ বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদেরকে গ্রেফতারের ধারাবাহিকতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের খ্যাতিমান শিক্ষক অধ্যাপক ড. তাজমেরী এস এ ইসলামকে বানোয়াট মামলায় গ্রেফতার ও জামিন বাতিল করে কারান্তরীণ করেছে।

তারা বলেন, বর্তমান সরকারের হিংস্র ছোবল থেকে নারী পুরুষ কেউই রেহাই পাচ্ছে না।
মিথ্যা অভিযোগে বিরোধীদলের নেতাকর্মীসহ দেশের গুণী মানুষদেরকে কারান্তরীণ রাখার অর্থ হচ্ছে- গণতন্ত্রকে চিরদিনের জন্য নির্বাসিত করা। জোর করে ক্ষমতা ধরে রাখতে গিয়ে সরকার বিকারগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। দেশের জনগণের কাছ থেকে এবং আন্তর্জাতিকভাবে বিচ্ছিন্ন এই সরকার আরো বেশি ক্রুদ্ধ হয়ে উঠেছে। আর বিএনপির রাজনীতি তথা বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদী আদর্শে বিশ্বাস করাটাই যেন তাজমেরী ইসলামের অপরাধ। এজন্যই তাকে বানোয়াট ও ভিত্তিহীন মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে। দেশে গণতন্ত্রের লেশমাত্র নেই। মৌলিক ও মানবাধিকার বর্তমান সরকার আগেই ভুলুন্ঠিত করেছে। শাসকগোষ্ঠী দেশে এক অস্বস্তিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। তবে সেদিন বেশি দূরে নয় যেদিন এই সরকারকে জবাবদিহি করতে হবে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের ১১ নম্বর রোডের একটি বাসা থেকে তাজমেরি এস ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়। ওইদিন বিকেলে পুরনো একটি নাশকতার মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে তোলে পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কাশিমপুর কারাগারে পাঠান। একই মামলার প্রধান আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তাজমেরি এস ইসলামকে কারাগারে পাঠানোর নিন্দা জানিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর