× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৫ মে ২০২২, বুধবার , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৩ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

বিজিত প্রার্থীদের অভিযোগ / ফরিদগঞ্জে নৌকা পরাজিত করেছে দলীয় নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসন

বাংলারজমিন

ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি
১৭ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার

ফরিদগঞ্জে সদ্য সমাপ্ত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীদের পরাজয়ের পেছনে দলীয় নেতারা দায়ী। তারা বলেছেন, সাবেক এমপি, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ আওয়ামী লীগ নেতারা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিলেন। একইসঙ্গে চাঁদপুর জেলা ও ফরিদগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনকেও তারা দায়ী করেছেন। রোববার দুপুরে ফরিদগঞ্জ প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি করেছেন পরাজিত ১০ জন প্রার্থী। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ১৫ নং রূপসা (উত্তর) ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ওমর ফারুক। পরাজিত প্রার্থীরা উপস্থিত হয়ে নিজেদের হারের কারণ ব্যাখা করেন। তারা বলেন, ফরিদগঞ্জ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য মুহম্মদ সফিকুর রহমানের সার্বিক সহযোগিতায় ফরিদগঞ্জ উপজেলার ১৩ জন প্রার্থী নৌকার মনোনয়ন লাভ করি।
দলীয় প্রতীক পাওয়ার পর থেকে ব্যক্তি স্বার্থে নৌকা প্রতীককে পরাজিত করতে সাবেক এমপি ও উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান নৌকার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন।
নির্বাচনে তাদের অনুসারীরা প্রকাশ্যে হুমকি ধমকি এবং তাদের অনুসারীদেরকে নৌকার বিপক্ষে মাঠে লেলিয়ে দেয়া হয়েছে। নৌকা প্রতীককে পরাজিত করার জন্য জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শীর্ষ নেতা ও সাবেক এমপি প্রায় প্রতিটি ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থীদের দাঁড় করিয়ে দেন। বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম রোমান প্রকাশ্য সমাবেশে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে হুমকি দিয়েছেন। তার অনুসারীরা এলাকায় গিয়ে ভয় ভীতি প্রদর্শন ও আওয়ামী লীগের ভোটারদের না আসার জন্য অপচেষ্টা করেন। পুলিশ বাহিনীর মাধ্যমে আতঙ্ক ছড়িয়ে দলীয় কর্মীদের এলাকাছাড়া করেছেন। বিশেষ করে নির্বাচনের দিন একটি বিশেষ মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা প্রিজাইডিং অফিসার ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারদের নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে যেতে বাধ্য করেছেন জেলা ও উপজেলা প্রশাসন। নির্বাচন চলাকালীন গুলি বর্ষণ, হামলার ঘটনা ছিল নিয়মিত। সংসদ সদস্য মুহম্মদ শফিকুর রহমানকে অপমানিত করতে এবং আগামী সংসদ নির্বাচনে ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের অবস্থান দুর্বল করতে দলীয় নেতারা ওই হীন প্রচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনে পরাজিত প্রার্থীদের মধ্যে বালিথুবা (পশ্চিম) ইউপির বাহা উদ্দিন, বালিথুবা (পূর্ব) ইউপির জি এম হাসান তাবাচ্চুম, সুবিদপুর (পশ্চিম) ইউপির পারভেজ হোসাইন, গুপ্টি (পূর্ব) ইউপির আব্দুল গনি বাবুল পাটওয়ারী, গুপ্টি
(পশ্চিম) ইউনিয়নের রফিকুল ইসলাম পাটওয়ারী, পাইকপাড়া (উত্তর) ইউপির আলা উদ্দিন, গোবিন্দপুর (উত্তর) ইউপির সোহেল চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান শাহীন, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক হেলাল উদ্দিন আহমেদ, পৌরসভার এমপি প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর পলোয়ান, রূপসা উত্তর ইউনিয়নের এমপি প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম সুমন, গোবিন্দপুর উত্তরের এমপি প্রতিনিধি পুতুল সরকার উপস্থিত ছিলেন।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর