× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৮ মে ২০২২, বুধবার , ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৬ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

শিবচরে ঔষধ কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধির মরদেহ উদ্ধার

বাংলারজমিন

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি
২০ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার

মাদারীপুরের শিবচরে মো.শফিকুল ইসলাম (২৮) নামে ওষুধ কোম্পানির এক বিক্রয়কর্মীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে শিবচর পৌরসভার শেখ হাসিনা সড়কে একটি পুরাতন থ্রি-হুইলার থেকে রক্তাক্ত মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত যুবক বরগুনা জেলার বামনা উপজেলার সোনাখালী গ্রামের নুরুল হকের ছেলে। তিনি কিউ রেক্স কোম্পানীতে শিবচরে কর্মরত ছিলেন। শিবচর থানার উপ-পরিদর্শক রবিউল ইসলাম আজ সকাল ৮টার দিকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে শফিকুল ইসলাম তার ২ জন সহকর্মীকে নিয়ে মাহেন্দ্রতে চড়ে শিবচরের মাদবরচরের বিভিন্ন বাজারে ওষুধ বিক্রি করে শিবচর ফিরছিল। মাদবরেরচরের খাড়াকান্দি এলাকায় পৌছলে রাস্তার উপর থাকা ড্রেজারের পাইপে ধাক্কা লেগে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দ্রুতগতির মাহেন্দ্রটি উল্টে যায়। এ সময় গাড়ির নিচে চাপা পড়ে শফিকুল গুরুতর আহত হন। পরে তার সাথে থাকা দুই সহকর্মী স্থানীয়দের সহযোগীতায় ওই মাহেন্দ্র গাড়িতে করেই গুরুতর আহত শফিকুল ইসলামকে শিবচর হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। তবে হাসপাতালে পৌছানোর আগেই শিবচর পৌরসভার শেখ হাসিনা সড়কে পৌছালে শফিকুল ইসলাম মারা যান।

পুলিশ ধারণা করছে, সহকর্মীরা ভয়ে তার লাশ মাহেন্দ্র গাড়িতে রেখেই পালিয়ে যায়।
পুলিশ লাশ উদ্ধারের স্থান ও দুর্ঘটনা কবলিত উভয়ই স্থানই পরিদর্শন করেছে।

শিবচর থানার উপ-পরিদর্শক রবিউল ইসলাম জানান, ’রাতে পৌরসভার শেখ হাসিনা সড়কে থ্রি-হুইলারের মধ্যে লাশ দেখে স্থানীয়রা শিবচর থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে শিবচর থানার ওসি মো. মিরাজ হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে ও থ্রি হুইলারটি জব্দ করে। পুলিশ। লাশ বর্তমানে শিবচর থানায় রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য কিছুক্ষণের মধ্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।
শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিরাজ হোসেন বলেন, ‘এটি দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। গুরুতর আহত শফিকুলকে কে বা কারা রেখে পালিয়ে গেছে সেটি আমরা নিশ্চিত নই। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।’
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর