× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৯ মে ২০২২, রবিবার , ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

জমি অধিগ্রহণেই প্রকল্পের মেয়াদ শেষ

বাংলারজমিন

চাঁপাই নবাবগঞ্জ সংবাদদাতা
২২ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার

২০১৮ সালের ১৪ই আগস্ট জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ‘চাঁপাই নবাবগঞ্জ পৌরসভার আওতাধীন মহানন্দা নদীর শেখ হাসিনা সেতুর সঙ্গে সংযোগ সড়ক উন্নয়ন’- প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। এই প্রকল্পের মেয়াদ ছিল ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত। কিন্তু তিন বছরেও কাজ শুরু হয়নি। জমি অধিগ্রহণ করতেই পেরিয়ে গেছে এই দীর্ঘ সময়। তবুও পুরোপুরি শেষ হয়নি। কবে নাগাদ জমি অধিগ্রহণ শেষ হবে এবং কবে কাজ শুরু হবে তা বলতে পারছেন না প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা। দ্বিতীয় দফায় ২০২৪ সালের জুন মাস পর্যন্ত এ প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। জানা গেছে, এ প্রকল্পের প্রথম ফেজে বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দীন জাহাঙ্গীর সেতু থেকে শেখ হাসিনা সেতু পর্যন্ত তিন কিলোমিটার সড়ক নির্মাণের জন্য ১৪ একর জমি অধিগ্রহণ প্রস্তাব দেয়া হয়।
জেলা প্রশাসনের অধিগ্রহণ শাখা প্রয়োজনীয় জমি অধিগ্রহণ করে। গত বছরের সেপ্টেম্বরে ভূমি উন্নয়নের জন্য অনুমতি দিয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগ-এলজিইডি। তবে ভূমি উন্নয়ন, সংযোগ কালভার্ট ও সড়ক নির্মাণে প্রাক্কলন ব্যয় বাড়িয়ে গত বছরের ২রা অক্টোবর নতুন করে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়। ১৮ কোটি ৮৮ লাখ ৯০ হাজার টাকার নির্মাণ ব্যয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২ কোটি ৫৪ লাখ ৮৫ হাজার টাকায়। প্রকল্প অফিসে এটি অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। অনুমোদন হলে প্রথম ফেজে বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দীন জাহাঙ্গীর সেতু থেকে শেখ হাসিনা সেতু পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণকাজ শুরু হবে। সূত্র জানায়, প্রথম ফেজে ক্ষতিপূরণ মূল্য নির্ধারণ করে ১৪ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়। তবে এখনো অধিকাংশ জমির মালিক ক্ষতিপূরণের টাকা পাননি। এছাড়াও এ প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে ১ দশমিক ৫৮ কি.মি. ঝিলিম রোড ও ১ দশমিক ৯০ কি.মি. করনেশন রোড প্রশস্তকরণ। চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসনের ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা রওশন জাহান বলেন, সম্পত্তি অধিগ্রহণ ও হুকুমদখল আইন-২০১৭ অনুযায়ী ক্ষতিপূরণ দেয়া হচ্ছে। অধিগ্রহণকৃত ১৪ একর জমির প্রায় ৭০ শতাংশ ক্ষতিপূরণের টাকা প্রদান করা হয়েছে। দু’-একদিনের মধ্যে আরও ২০ জনকে ক্ষতিপূরণের টাকা দেয়া হবে। এ প্রকল্পের প্রয়োজনীয় আরও জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি। এ প্রসঙ্গে এলজিইডি চাঁপাই নবাবগঞ্জ কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোজাহার আলী প্রাং বলেন, চাঁপাই নবাবগঞ্জ পৌরসভার আওতাধীন মহানন্দা নদীর শেখ হাসিনা সেতুর সঙ্গে সংযোগ সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প ২০১৮ সালে একনেক সভায় অনুমোদন দেয়া হয়। ২০২১ সালের জুন মাসে এ প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হলে দ্বিতীয় দফায় ২০২৪ সালের জুন মাস পর্যন্ত মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। আশা করা যায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শেষ হবে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর