× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৫ মে ২০২২, বুধবার , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৩ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

হাটহাজারীতে উদ্বোধনের এক বছর পরও চালু হয়নি বিআরটিসি বাস

বাংলারজমিন

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
২২ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি) এর ব্যবস্থাপনায় স্থানীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি ৩টি বাস উদ্বোধন করেছিলেন। উদ্বোধনের পর থেকে দীর্ঘ এক বছর এক মাস পার হলেও হাটহাজারীতে রাস্তায় দেখা মিলছে না উদ্বোধনীয় বাসগুলো।
জানা যায়, বিআরটিসি বাসগুলো প্রতিদিন সকাল ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত হাটহাজারী থেকে চট্টগ্রাম নিউ মার্কেট হয়ে পুনরায় হাটহাজারীতে চলাচল করবে। যেকোনো সাধারণ মানুষ টিকিট করে এই গাড়িগুলোতে চলাচল করতে পারবেন। তবে সাধারণ মানুষকে দেয়া সরকারি এই বাসগুলোকে কাদের অদৃশ্য ক্ষমতাবলে রাস্তায় নামতে দেয়া হয়নি এবং যাত্রী আনা-নেয়া করতে পারছেনা এটা এখন প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে।
চট্টগ্রাম নাজিরহাট খাগড়াছড়ি বাস- মিনিবাস মালিক সমিতি ও হাটহাজারী টু চট্টগ্রাম নিউ মার্কেট এর সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, বিআরটিসির বাসগুলো উদ্বোধনের জন্য আমাদের এমপি মহোদয়ের সঙ্গে আমাদের মালিক গ্রুপের সভাপতি মঞ্জু ভাইয়ের সঙ্গে একটা আলোচনা হয়েছিল বিআরটিসি বাসগুলো হাটহাজারী কলেজ গেট থেকে উদ্বোধন করা হবে। এভাবে প্রচার-প্রচারণা করেছিল, আমরাও তা জানতাম। কিন্তু হঠাৎ করে শোনা যাচ্ছে ওই বাসগুলো বাস স্টেশন থেকে উদ্বোধন করা হবে। ইতিমধ্যে আমাদের শ্রমিকদের মাঝে নানা গুঞ্জন, আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে। দীর্ঘ একশ’ বছর, স্বাধীনের আগে থেকে আমরা এই বাস স্ট্যান্ড থেকে চট্টগ্রাম নগরমুখী ও আন্তঃজেলা বাস চালিয়ে আসছি।
কিন্তু এখানে বিআরটিসি বাসগুলো উদ্বোধন করে এটা কার উদ্দেশ্য হাসিল করা হচ্ছে আমরা জানি না। এখানে আমাদের একশ’ বছরের অবস্থান। এখান থেকে কোনোপ্রকারে বাসগুলো ছাড়তে দেয়া হবে না। বর্তমানে বাসগুলো কোথায় আছে জানতে চাইলে বলেন, উদ্বোধনের তৃতীয় দিন পর্যন্ত বাসগুলো চলাচল করতে দেখেছি। এরপর আর দেখা যায়নি। কোথায় আছে, কাদের নির্দেশনায় বন্ধ হয়ে আছে তা আমাদের জানা নেই।
চট্টগ্রাম-৫ আসনের সংসদ সদস্য (হাটহাজারী-বায়েজিদ আংশিক) প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি, মাননীয় প্যানেল স্পিকার-৩ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি বিআরটিসি বাসগুলো উদ্বোধনের দিন বলেন, হাটহাজারীতে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করার জন্য আমরা ১০টি বিআরটিসি বাস দিয়েছি। এখানে যে লোকাল বাস আছে সেগুলোর সার্ভিস এত ভালো না। সুতরাং বিআরটিসি বাসগুলোতে মানুষ চলাচলের সুবিধা হবে। এবং লোকাল বাসের ওপর চাপ কমবে। তাই এই বাসগুলো উদ্বোধন করেছি।
বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন চট্টগ্রামের ডিপো ম্যানেজার মাসুদ তালুকদার বলেন, বাস উদ্বোধনের সময় শ্রমিকদের বাধার মুখে পড়ে বাসগুলো ফিরিয়ে এনেছি। উদ্বোধনের পূর্বমুহুর্তে বিআরটিসির বাস চাকলদেরও মারধর করে উক্তেজিত শ্রমিকরা। এখানে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের কোনো সহযোগিতা পাওয়া যায়নি। মূলত হাটহাজারী বাস স্টেশন, বাস শ্রমিক, মালিক গ্রুপের বাধার মুখে পড়ে আমরা বাসগুলো চলাচল করতে দিতে ব্যর্থ হয়েছি। সকলের সহযোগিতা পেলে আশা করি পুনরায় বাসগুলো হাটাজারীতে চলতে দেয়া হবে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর