× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৮ মে ২০২২, বুধবার , ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৬ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

বিপিএল /৯৬ রান তাড়া করতেই ৮ উইকেট খোয়ালো কুমিল্লা

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
২২ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার

এবারের বিপিএলে তারকাবহুল দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। তবে সিলেট সানরাইজার্সের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ৯৬ রান তাড়া করতেই ঘাম ছুটে গেছে তাদের। ৮ বল হাতে রেখে ২ উইকেটের কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে কুমিল্লা। ম্যাচসেরা হয়েছেন কুমিল্লার নাহিদুল ইসলাম।

দলীয় ১৩ রানে ফাফ ডু প্লেসিকে (২) হারায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। আরেক ওপেনার ক্যামেরন ডেলপোর্টের ব্যাট থেকে আসে ১৯ বলে ১৬ রান। মুমিনুল হক ১৫ এবং অধিনায়ক ইমরুল কায়েস করেন ১০ রান। আরিফুল হকের (৪) বিদায়ে দলীয় ৫৫ রানেই ৫ উইকেট খোয়ায় কুমিল্লা। এরপর করিম জানাতকে নিয়ে জুটি গড়েন নাহিদুল ইসলাম।
দলীয় ৮২ রানে আউট হন করিম। ১৩ বলে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ১৮ রান করেন এই আফগান ক্রিকেটার। তবে ৬ রানের ব্যবধানে নাহিদুল (১৬) ও শহীদুল ইসলামের (১) বিদায়ে হারের শঙ্কা জাগে ভিক্টোরিয়ানস শিবিরে। উইকেটরক্ষক মাহিদুল ইসলাম অঙ্কান ১৪ বলে ৯ এবং তানভীর ইসলামের ৬ বলে ৩ রানে শেষ পর্যন্ত কষ্টার্জিত জয় পায় কুমিল্লা।

বল হাতে সিলেটের স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু ৪ ওভারে ১৭ রানে নেন ৩ উইকেট। অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতও দারুণ বোলিং করেছেন। ৪ ওভারে মাত্র ১০ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন তিনি। ফাফ ডু প্লেসির উইকেটসহ সোহাগ গাজীর শিকার দুটি। এছাড়া পেসার তাসকিন ৪ ওভারে ১৯ রানে পেয়েছেন এক উইকেট।

ব্যাট হাতে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের দলের শুরুটা হয় নড়বড়ে। কুমিল্লার বোলারদের দাপটে মাত্র ৯৬ রানে গুটিয়ে যায় সিলেট।

মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে সিলেটকে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান কুমিল্লা অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। মোস্তাফিজুর রহমান, নাহিদুল ইসলামের দাপুটে বোলিংয়ে ১৯.১ ওভারেই সবকটি উইকেট হারায় সিলেট।

সিলেটের ব্যাটিং লাইনআপে প্রথম আঘাতটা করেন নাহিদুল ইসলাম। ব্যক্তিগত ৩ রানে উইকেটের পেছনে মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনের তালুবন্দি হয়ে ফেরেন এনামুল হক। দলীয় ৩৩ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় সিলেট। সর্বোচ্চ ২০ রান করে শহিদুল ইসলামের উইকেটে পরিণত হন কলিন ইনগ্রাম। রবি বোপারা ১৭, সোহাগ গাজী ১২ রান করেন। এছাড়া কোনো ব্যাটারই ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্কের কোঠা।

কুমিল্লার মোস্তাফিজুর রহমান, নাহিদুল ইসলাম ও শহীদুল ইসলাম ২টি করে উইকেট নেন। একটি করে উইকেট পান তানভির ইসলাম ও মুমিনুল হক।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর