× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৫ মে ২০২২, বুধবার , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৩ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

চুড়ামনকাটির জগহাটি বাঁওড় দখলমুক্ত করার দাবিতে মানববন্ধন

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর থেকে
২৫ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার

যশোর সদরের চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের জগহাটি বাঁওড় দখলমুক্ত করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাঁওড় পাড়ের শতাধিক জেলে।  সোমবার সকালে প্রেস ক্লাব যশোরের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। পরে তারা জেলাপ্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করে। মানববন্ধনে অংশ নিয়ে চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিন বলেন, চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডে অবস্থিত ১১৪ একর ৫০ শতক এ বাঁওড়ে এলাকার হতদরিদ্র মৎস্যজীবীরা মাছ চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করে। বর্তমানে অত্র ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মান্নান মুন্না দখল করে রেখেছেন। তিনি বলেন, ২০১৮ সালে ১৫৫ নং মৎস্যজীবী সমিতির পক্ষ থেকে অত্র বাঁওড়টি সরকারের কাছ থেকে ১০ লাখ ৩৩ হাজার ৩শ’ ৩০ টাকা দিয়ে ৩ বছরের জন্য লিজ গ্রহণ করা হয়। এরপর ২৪ মাস বাঁওড়টি উক্ত মৎস্যজীবী সমিতির ৬০ জন সদস্য ভোগদখল করছিলেন। এরমধ্যে ষড়যন্ত্র করে বাঁওড়টি সরকারের পক্ষ থেকে মৎস্যজীবী সমিতির কাছ থেকে নিয়ে নেয়া হয়। তবে এখনও পর্যন্ত তাদের টাকা ফেরত দেওয়া হয়নি।
এরমধ্যে ২০১৯ সালে এই ইউনিয়নের তৎকালীন চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মুন্না কোনো কাগজপত্র ছাড়াই তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে বাঁওড়টি দখল করে নেয়। সেই থেকে  দখল করে মাছ চাষ করছে। বর্তমান বাঁওড়ে কোন জেলেকে নামতে দেয়া হয় না। এর আগে বাঁওড়ের কর্তৃত্ব দখলের চেষ্টা করলেও প্রশাসন দিয়ে হয়রানি করা হয়। মানবন্ধন থেকে জগহাটি বাঁওড়টিকে দখলমুক্ত করে প্রকৃত মৎস্যজীবীদের হাতে হস্তান্তরের দাবি জানানো হয়। পরে এ বিষয়ে তারা জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেয়।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর