× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৮ মে ২০২২, বুধবার , ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৬ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

নাসির-তামিমার মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি শেষ, আদেশ ৯ই ফেব্রুয়ারি

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার
২৫ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার

ক্রিকেটার নাসির হোসেন এবং বিমানবালা তামিমা সুলতানা তাম্মির বিরুদ্ধে তার সাবেক স্বামীর করা মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য ৯ই ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেছেন আদালত। গতকাল ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন অভিযোগ গঠনের শুনানির এই নতুন দিন ধার্য করেন। তবে নাসির ও তামিমার আইনজীবী কাজী নজিবুল্যাহ হীরু তাম্মির মা সুমি আক্তারসহ সবাইকে মামলা থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন। শুনানিতে কাজী নজিবুল্যাহ হিরু বলেন, তামিমা যথাযথভাবে রাকিবকে তালাক দিয়েছেন। তা কার্যকরের বিষয় কাজী অফিসের। নাসিরের সঙ্গে যখন তামিমার বিয়ে হয় তখন কাবিননামায় তালাকপ্রাপ্ত লেখেন তামিমা। রাকিবকে তামিমা তালাক দিয়েছেন এটা তাদের ব্যাপার। এখানে সুমি আক্তারের (তামিমরা মা) কোনো ভূমিকা নেই।
তাই মামলার দায় থেকে সবাইকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন জানাচ্ছি। অপরদিকে রাকিবের আইনজীবী ইশরাত হাসান বলেন, ডিভোর্সের পরেও তামিমা-রাকিব একসঙ্গে থেকেছেন। আইনে আছে যিনি তালাক দেবেন তিনি নোটিশ জারি করবেন। কিন্তু তামিমা নোটিশ জারি করেননি। রবং ভুয়া কাগজপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়া তালাকের পর রাকিবের নাম ও পরিচয় ব্যবহার করেছেন তামিমা। এ বিষয়ে তামিমার মা সব জানতেন। তাই আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করতে আবেদন জানাচ্ছি। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক এ বিষয়ে আদেশের জন্য ৯ই ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন। গত ৩০শে সেপ্টেম্বর রাকিব হাসানের দায়ের করা এই মামলায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কর্মকর্তা মিজানুর রহমান আদালতে অভিযোগপত্র দেন। সেখানে বলা হয়, আগের স্বামী রাকিব হাসানের সঙ্গে যথাযথভাবে বিচ্ছেদ হওয়ার আগেই তামিমা ক্রিকেটার নাসিরকে বিয়ে করেন। সুতরাং তাদের এ বিয়ের ‘বৈধতা নেই’। তালাকের বিষয়ে তারা যা বলেছেন, তার ‘সত্যতা মেলেনি’। ডিভোর্সের  যে কাগজপত্র দেখানো হয়েছে, সেগুলো তৈরি করা হয়েছে ‘জালিয়াতির মাধ্যমে’।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর