× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৬ মে ২০২২, সোমবার , ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে অভিযান / ৩ লাখ টাকাসহ অফিস সহকারী মুন্নী আটক

অনলাইন

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি
(৩ মাস আগে) জানুয়ারি ২৭, ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১১:০১ পূর্বাহ্ন

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে দুর্নীতি দমন কমিশন দুদক অভিযান চালিয়েছে। অভিযানে হিসাব বহির্ভূত ৩ লাখ ১ হাজার ২০০ টাকাসহ অফিস সহকারী জান্নাতুল আক্তার মুন্নীকে আটক করেছে দুদক। গতকাল বুধবার বিকাল ৫টা থেকে রাত প্রায় পৌনে ১০টা পর্যন্ত দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত কার্যালয় কুষ্টিয়া এ অভিযান চালায়।

সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত কার্যালয় কুষ্টিয়া’র উপ-পরিচালক মো. জাকারিয়ার নেতৃত্বে দুদকের অভিযানিক দল দৌলতপুর সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে অভিযান চালায়। এসময় তারা অফিসের প্রধান দরজায় তালা মেরে অফিসের ভেতরে তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করে। প্রায় ৫ ঘণ্টা ধরে চালানো অভিযানে সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের অফিস সহকারী জান্নাতুল আক্তার মুন্নীর ড্রয়ার থেকে হিসাব বহির্ভূত ৩ লাখ ১ হাজার ২০০ টাকা উদ্ধার করে এবং মুন্নীকে আটক করে দৌলতপুর থানা হেফাজতে রাখে।

অভিযান চলাকালে দৌলতপুর সাব-রেজিস্ট্রার সুব্রত কুমার সিংহসহ অফিসের সকলকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন দুদক কুষ্টিয়ার উপ-পরিচালক মো. জাকারিয়া।
তবে সাব-রেজিস্ট্রার অফিস সূত্র জানিয়েছে বুধবার ৩১৬টি দলিল রেজিস্ট্রি হয়েছে। রেজিস্ট্রি হওয়া দলিলের টাকা অফিস সহকারী জান্নাতুল আক্তার মুন্নীর হেফজতে ছিল। পরবর্তীতে রশিদ কেটে টাকাগুলো সরকারী কোষাগারে বা ব্যাংকে জমা দেয়ার কথা ছিল।

এ বিষয়ে দৌলতপুর থানার ওসি এস এম জাবীদ হাসান বলেন, দুদক একজন আসামি আমাদের হেফজতে রেখে গেছেন।
আগামীকাল (আজ বৃহস্পতিবার) তাকে নিয়ে যাবেন। তিনি আরো বলেন, দুদকের মামলা তারা নিজেরাই দায়ের করেন এবং তারাই তদন্ত করে থাকেন।

এদিকে দীর্ঘ সময় ধরে চলা দুদকের অভিযানের খবর দৌলতপুরে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় এবং উৎসুক জনতা দৌলতপুর সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের সামনে ভিড় করে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Md Yousuf Ali Mia
২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৭:২৬

Please keep a record of wealth including their relatives at the time of joining of all Sub registers and Govt. employees of the country.

মোঃ আলী
২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৬:৪৮

এটা কি নতুন কিছু ? এ রকম অনিয়ম নিয়মে পরিণত হয়েছে।

Zahir Islam
২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৪:৫২

very good

Md. Harun al-Rashid
২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:৫৬

প্রতিটি সাবরেজেষ্টি অফিসে দলিলে উধৃত মল্যের সরকারি জমার উপরতি নূনতম ১১% দলিল লিখকের নিকট অগ্রিম না দিলে রেজেষ্ট্রি বন্ধ থাকে। বিষয়টি ওপেন সিক্রেট।

কাজি
২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১২:০৩

সাবরেজিষ্ট্রারের হাতে জমা হয়ে যেত। অফিস সহকারী উপর ওয়ালার হুকুম তামিল করতে বাধা চাকরি রক্ষার জন্য । মুন্নি দোষী নয়। সাবরেজিষ্ট্রারের সম্পদ এর তত্ত্ব অনুসন্ধান করুন ।

Abdur Razzak
২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১১:২৯

মাননীয় দুদক চেয়ারম্যানের কাছে সবিনয়ে অনুরোধ সাড়া বাংলাদেশের সাব-রেজিস্ট্রি অফিস, ইনকাম ট্যাক্স অফিস কাস্টমস অফিসসহ এভাবে অভিযান চালানে কিছুটা হলেও দুর্নীতি কমবে। বিশেস ইনকাম ট্যাক্স অফিস সেগুনবাগিচার অবস্থা খুবই খারাপ।

অন্যান্য খবর