× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২২ মে ২০২২, রবিবার , ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১৪ ইউনিয়নের ভোটে নানা শঙ্কা / একদম রক্ত খুইল্লালামু...

শেষের পাতা

জাবেদ রহিম বিজন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে
২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার

‘একদম রক্ত খুইল্লালামু কিন্তু মনে করো হাত-পাওয়ের রগ কাইট্টা,একদম রক্ত বাইর কইরালামু সব, তোর মামা বড় না, আমি বড়..’- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের বিটঘর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র এক প্রার্থীর সমর্থককে হুমকি দেয়ার এই মোবাইল কল রেকর্ড ভাইরাল। তাছাড়া ওই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী মেহেদী জাফর দস্তগীরের পক্ষে সন্ত্রাসীদের হুমকি-ধমকিতে ভোটের মাঠে আতঙ্কজনক পরিবেশ সৃষ্টি হওয়ার অভিযোগ করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী কিবরিয়া। তিনি জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে এই অভিযোগ করেন। অস্তির বিদ্যাকুট ইউনিয়নও। কসবার পশ্চিম ইউনিয়নে ৩ চেয়ারম্যান প্রার্থী  আবু ইউসুফ র্ভূইয়া, আবুল কালাম আজাদ ও মো. আতাউর রহমান জেলা প্রশাসকের কাছে তাদের প্রচারণায় বাধা এবং প্রাণনাশের হুমকি দেয়ার অভিযোগ করেছেন। তারা ওই ইউনিয়নের ৭টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ দাবি করে সেখানে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেয়ার দাবি জানান। ইউনিয়নে ইউনিয়নে এমন নানা উদ্বেগ-আতঙ্কের মধ্যে আগামী ৩১শে জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১৪ ইউনিয়নে নির্বাচন। সবক’টি ইউনিয়নেই ইভিএম-এ ভোট হবে।
নবীনগর ও কসবা উপজেলার এসব ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৯৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরমধ্যে কসবায় আওয়ামী লীগের প্রতীকবিহীন নির্বাচন হচ্ছে। এরআগে পঞ্চম ধাপ পর্যন্ত জেলার ৭৯টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন জানান, এই পর্যন্ত জেলায় যে ক’টি ইউনিয়নের  নির্বাচন হয়েছে সেখানে কোনো গোলযোগ হয়নি। আসছে নির্বাচনও একই ধাচে হবে। কেউ পেশীশক্তির ব্যবহার বা ঝামেলা করার সুযোগ পাবেনা।
 
১৪ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী যারা: কসবার বিনাউটি ইউনিয়নে ১০ জন প্রার্থী  প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হচ্ছেন আসাদুল হাসান (আনারস), এ এস এম ওমর ফারুক (চশমা), বেদন খাঁন (ঘোড়া), মো. ইকবাল হোসেন (টেলিফোন), মো. তছলিমুল ইসলাম চৌধুরী (মোটর সাইকেল), মো. নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া (টেবিল ফ্যান), মো. মঞ্জুর আলম (অটোরিকশা), মো. রতন মিয়া (ঢোল), জাতীয় পার্টির শামীম ভূঁইয়া (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. তোফাজ্জল হোসেন (হাতপাখা), গোপিনাথপুর ইউনিয়নের প্রার্থীরা হচ্ছেন আবদুল্লাহ আল মামুন (ঘোড়া), এস এম এ মান্নান (অটোরিকশা), মিজানুর রহমান (টেবিল ফ্যান), মো. আনোয়ার হোসেন ভূইয়া (টেলিফোন), মো. গোলাম মোস্তফা (চশমা), মো. জহিরুল ইসলাম (মোটরসাইকেল), মো. মাসুদুল হক ভূঁইয়া (আনারস), কসবা পশ্চিম ইউনিয়নের প্রার্থীরা হচ্ছেন- আবুল কালাম আজাদ (আনারস), ইসমাইল হোসেন (রজনীগন্ধা), ফকরুল ইসলাম (মোটরসাইকেল), মোহাম্মদ আতাউর রহমান (দুটি পাতা), মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী (টেবিল ফ্যান), মো. আবু ইউসুফ ভূঁইয়া (ঘোড়া), মো. ফায়েজ (ঢোল), মো. মানিক মিয়া (অটোরিকশা), মো. মিজানুর রহমান (টেলিফোন), মো. হাবিবুর রহমান (চশমা), বায়েক ইউনিয়নে আল মামুন ভূঁইয়া (চশমা), নাজমুল হাসান (টেলিফোন), মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন (অটোরিকশা), মো. আবুল কালাম আযাদ (ঢোল), মো. নূরুন্নবী আজমল (মোটরসাইকেল), মো. মনিরুল হক মনির (ঘোড়া), হাবিবুর রহমান (আনারস), কাইমপুর ইউনিয়নে ইকতিয়ার আলম রনি (আনারস), মো. ইয়াকুব আলী ভূঁইয়া (অটোরিকশা), মেহারী ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির আবু তাহের মোল্লা (লাঙ্গল), স্বতন্ত্র আবদুল আওয়াল (চশমা), এস এম শামীম আক্তার (মোটরসাইকেল), নুর বেগম সুমি (আনারস), মোশারফ হোসেন (টেবিল ফ্যান), মো. আকসিন হাবিব খান (ঘোড়া), মো. আল আমিন মিয়া (টেলিফোন), মো. জাহাঙ্গীর ওসমান (রজনীগন্ধা), সুমন মিয়া (অটোরিকশা), বাদৈর ইউনিয়নের প্রার্থীরা হচ্ছেন আবু জামাল খান (অটোরিকশা), মো. নিজামুল হক (মোটরসাইকেল), মো. সাইফুল ইসলাম (ঘোড়া), শফিকুল ইসলাম (আনারস), শিপন আহমেদ ভূঁইয়া (চশমা)। নবীনগরের বড়াইল ইউনিয়নের প্রার্থীরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের মো. জাকির হোসেন (নৌকা), স্বতন্ত্র এটিএম মোস্তাফিজুর রহমান (মোটরসাইকেল), নাজমুল হক (টেলিফোন), মো. আনোয়ার হোসেন (ঘোড়া), মো. উসমান (আনারস), মো. ফরিদ উদ্দিন (টেবিল ফ্যান), মো. শাহ পরান (চশমা), বিদ্যাকুট ইউনিয়নের  প্রার্থীরা হচ্ছেন ইসলামী  আন্দোলন বাংলাদেশের আবুল হাছান (হাত পাখা), জাকারুল হক (নৌকা), স্বতন্ত্র জীবন মিয়া (টেলিফোন), মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন (ঘোড়া), মোহাম্মদ শাহাদাৎ হাসেন (মোটরসাইকেল), মোহাম্মদ হান্নান (ঢোল), মো. এনামুল হক (আনারস), রফিকুল ইসলাম (চশমা), হাবিবুর রহমান (অটোরিকশা), মো. এনামুল হক (টেবিল ফ্যান), বিটঘর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মেহেদী জাফর (নৌকা), জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ আবু মোছা (লাঙ্গল), আবুল হোসেন(আনারস), একেএম আশরাফুল আলম (টেলিফোন), কিবরিয়া (ঘোড়া), মো. সুলাইমান ভূঁইয়া সোহাগ (মোটরসাইকেল), মো. হাসান উল্লাহ(চশমা), কাইতলা দক্ষিণ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মো. শওকত আলী (নৌকা), ইকবাল আহমেদ (আনারস), মো. শফিকুল ইসলাম(ঘোড়া), সৈয়দ আবু ছালেহ(মোটরসাইকেল), কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মোহাম্মদ মাশুকুর রহমান (নৌকা), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. মনিরুজ্জামান (হাতপাখা), স্বতন্ত্র আমজাদ হোসাইন (চশমা), মো. জিল্লুর রহমান(আনারস), নাটঘর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সাইফুল আলম(নৌকা), স্বতন্ত্র আক্তারুজ্জামান (মোটরসাইকেল), মোহাম্মদ নোয়াব মিয়া (চশমা), মো. মহিন উদ্দিন (আনারস), রফিকুল ইসলাম রতন (ঘোড়া), শিবপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মো. শাহীন সরকার (নৌকা), জাতীয় পার্টির মোবারক (লাঙ্গল), স্বতন্ত্র আরিফুল হক চৌধুরী (টেলিফোন), এম আর মজিব (আনারস), গোলাম জিলানী (ঘোড়া), মোহাম্মদ মোছা(চশমা), মো: আবুল বাশার(টেবিল ফ্যান), মো. মাহবুব আলম(মোটরসাইকেল)।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর