× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৭ মে ২০২২, মঙ্গলবার , ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

১ ভোটের আক্ষেপ মার্শের, বর্ষসেরা স্টার্ক

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর অ্যাশেজ সিরিজ জয়। ২০২১ সালটা সোনায় মোড়ানো ছিল অস্ট্রেলিয়ার। দলের দাপুটে অবস্থানে উজ্জ্বল ছিলেন মিচেল স্টার্ক-মিচেল মার্শরাও। দ্যুতি ছড়িয়ে অবদান রেখেছেন একের পর এক জয়ে। আর আলো ছড়ানো বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার বর্ষসেরা নির্বাচিত হলেন মিচেল স্টার্ক। ‘অ্যালান বোর্ডার মেডেল’ জেতার পথে মিচেল মার্শকে এক ভোটে হারান তিনি।

বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারের খেতাবটিও জুড়েছে স্টার্কের নামের সঙ্গে।
প্রথমবারের মতো অ্যালান বোর্ডার মেডেল জেতা স্টার্ক গোটা একুশ সালেই ছড়িয়েছেন উত্তাপ। ২৪.৪ বোলিং গড়ে শিকার করেছেন সর্বোচ্চ ৪৩ উইকেট। করোনার জেরে ২০২১ সালে মাত্র ৩টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে পেরেছে অস্ট্রেলিয়া।
স্টার্ক সেই তিন ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়ে বর্ষসেরা হন। সেরা বোলিং ৪৮ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট। বোলিং গড় ১০.৬৪ এবং ইকোনমি রেট ৪.৩১।

এক ভোটে স্টার্কের কাছে ‘অ্যালান বোর্ডার মেডেল’ হাতছাড়া করলেও টি-টোয়েন্টির সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন মিচেল মার্শ। ২০২১ সালে ২১ টি- টোয়েন্টিতে ৩৬.৮৮ গড় ও ১২৯.৮১ স্ট্রাইকবরেটে মার্শের সংগ্রহ ৬২৭ রান। বল হাতে ১৮.৩৮ গড়ে নেন ৮ উইকেট।
মেয়েদের বর্ষসেরার খেতাব ‘বেলিন্ডা ক্লার্ক মেডেল’ জিতেছেন অ্যাশলি গার্ডনার। প্রথম আদিবাসী ক্রিকেটার হিসেবে সেরার সম্মান পেলেন ২৪ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার।

বর্ষসেরা টেস্ট ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতেন ব্যাটার ট্রাভিস হেড। ২০২১ সালে হেড টেস্ট ম্যাচ খেলেন তিনটি। চার ইনিংসে ৬২ গড়ে তার সংগ্রহ ২৪৮ রান। হাঁকান একটি শতক ও একটি হাফ সেঞ্চুরি।
স্টার্কের জীবনসঙ্গী অ্যালিসা হিলি পেয়েছেন মেয়েদের বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারের সম্মান। মেয়েদের বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার বেথ মুনি।

এছাড়া ঘরোয়া ক্রিকেটে ছেলেদের বর্ষসেরা হয়েছেন ট্রাভিস হেড, মেয়েদের সেরা এলিস ভিলানি।
গত বছরের ২৬ জানুয়ারি থেকে এই বছরের ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত সময়ের পারফরম্যান্সকে বিবেচনায় নেয়া হয়েছে এবারের অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাওয়ার্ডস-এ। ক্রিকেটার, আম্পায়ার ও সংবাদকর্মীদের ভোটে নির্ধারিত করা হয় বিজয়ী।

স্টার্ক বর্ষসেরা হয়েছেন ১০৭ ভোট পেয়ে। মার্শের ভোট ১০৬টি। ট্রাভিস হেড পান ৭২ ভোট। মেয়েদের বর্ষসেরায় গার্ডনার পেয়েছেন ৫৪ ভোট। ৪৭ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় বেথ মুনি, অ্যালিসা হিলির ভোট ৩৯টি।
১৫ ভোট পেয়ে বর্ষসেরা ওডিআই ক্রিকেটার হন স্টার্ক। ৬ ভোটে দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন ম্যাথু ওয়েড।
১২ ভোট পেয়ে বর্ষসেরা টেস্ট ক্রিকেটার হন ট্রাভিস হেড। ১০ ভোট নিয়ে দুইয়ে ছিলেন পেসার স্কট বোল্যান্ড।
৫৩ ভোট পেয়ে বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার মিচেল মার্শ। ২৯ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় জশ হেইজেলউড, অ্যাশটন অ্যাগার পেয়েছেন ২৬টি।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর