× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ অক্টোবর ২০২০, বুধবার

ভারতে সুপার ইমার্জেন্সি চলছে : মমতা

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার, ১:১৪

ফের ভারতের মোদী সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ভারতে সুপার ইমার্জেন্সি চলছে। রোববার আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে টুইটারে মমতা লিখেছেন, আজ আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবসে আসুন আমরা সকলে আমাদের দেশের সাংবিধানিক পরিকাঠামোকে অক্ষুন্ন রাখার অঙ্গীকার নিই। এই সুপার ইমারজেন্সির জমানায় মানুষের সাংবিধানিক অধিকার ও স্বাধীনতা রক্ষার জন্য যা যা করতে হবে আমরা তা অবশ্যই করব। এনআরসি, কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থাকে দিয়ে তল্লাশি অভিযান, পুজো কমিটিকে আয়কর দপ্তরের নোটিসসহ কেন্দ্রের বিভিন্ন কাজের বিরোধিতা করেছেন মমতা। শনিবারও জাতীয় হিন্দি দিবস উপলক্ষ্যে হিন্দিকে জাতীয় ভাষা করার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বক্তব্যের জবাবে মমতা লিখেছেন, আঞ্চলিক ভাষাকে সম্মান দেওয়া উচিত। মাতৃভাষাকে কখনওই ভোলা উচিত নয়। শনিবার ‘হিন্দি দিবস’  উপলক্ষ্যে অমিত শাহ বলেছেন, কোনও ভাষা যদি দেশকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে পারে, তবে তা হলো হিন্দি। কারণ, ওই ভাষাতেই দেশের বহু মানুষ  কথা বলেন।
তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এই মন্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিরোধী রাজনীতিবিদরা। বিরোধীরা জানিয়েছেন, জনগণনার সমীক্ষা থেকেই দেখা গেছে, ভারতের প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৬ জনেরই মাতৃভাষা হিন্দি নয়। দেশের মাত্র ৪৩.৬৩ শতাংশ মানুষ হিন্দিতে কথা বলেন। এর পরেই রয়েছে বাংলা। মোট ৮.০৩ শতাংশ মানুষ বাংলায় কথা বলেন। এর পরে রয়েছে অন্যান্য ভাষা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর