× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৫ ডিসেম্বর ২০২০, শনিবার
ভিসির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রস্তুত

জাবি শিক্ষার্থীদের পটচিত্র আঁকা কর্মসূচি

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার
৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গতকাল পটচিত্র আঁকা কর্মসূচি পালন করেছে। অব্যাহত আন্দোলনের অংশ হিসাবে তারা এ কর্মসূচি পালন করেন। ভিসি ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন চলছে ক্যাম্পাসে। আন্দোলনে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা হামলা চালালে উত্তপ্ত হয়ে উঠে পরিবেশ। গত তিন দিনের আন্দোলনের পর গতকাল কিছুটা নীরব ছিল ক্যাম্পাস। পূর্বঘোষিত পটচিত্র আকার কর্মসূচি সকাল থেকেই পালন করেন শিক্ষার্থীরা। দীর্ঘ দুটি পটচিত্রে ফুটে ওঠে নানা প্রতিবাদী চিত্র। আন্দোলনে আগের দিনের মতো শিক্ষকদের উপস্থিতি ছিলনা।
অন্যদিকে বৃষ্টির কারণে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের কার্যক্রমে স্থবিরতা দেখা যায়। তাদের আঁকা পটচিত্রের রং বৃষ্টির পানিতে ছড়িয়ে যায়। শিক্ষার্থীরা বিকাল সাড়ে চারটার দিকে তাদের আঁকা পটচিত্র নিয়ে প্রশাসানিক ভবন থেকে নতুন কলাভবনে জড়ো হন। এসময় তারা নানা স্লোগান দিতে থাকেন। নতুন কলা ভবনে শিক্ষার্থীরা নিজেরা আলোচনায় বসেন। আলোচনায় শিক্ষার্থীদের নানা বিষয়ে দ্বিমত লক্ষ্য করা যায়। তারা অনেকেই ছাত্রীদের হলে তালা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশের কথা বলেন। আবার অনেকেই এর মাধ্যমে ছাত্রীরা বিপদে পড়তে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো ঘুরে দেখা যায়, সেখানে সুনসান নিরবতা। কিছু শিক্ষার্থী হলে প্রবেশ করলেও তাদের শুধুমাত্র কয়েক মিনিটের অনুমতি দেয়া হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণার পর হল গুলোর পানির সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হলেও এখন তা সচল রয়েছে। জানা যায়, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা প্রথম দুই দিন অবস্থান করলেও এখন তারাও হল ছাড়া। একজন নিরাপত্তাকর্মী বলেন প্রশাসনের আদেশ অনুযায়ী কোন শিক্ষার্থীকেই হলে থাকার অনুমতি দেয়া হচ্ছে না। সাধারণ কোনো শিক্ষার্থী কিংবা রাজনৈতিক পরিচয়ের কোন শিক্ষার্থীকে হলে থাকার অনুমতি দেয়া হবে না। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশে অবস্থান করছেন। নারী শিক্ষার্থীরা অবস্থান করছেন শিক্ষকদের বাসায়। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের খাওয়ার ব্যবস্থা করছেন আন্দোলনে একাত্মতা ঘোষণা করা শিক্ষকরা। ক্যাম্পাসে প্রবেশের প্রতিটি গেটে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। ভিসির বাড়ির সামনে এখন অবস্থান করছেন প্রায় শতাধিক পুলিশ সদস্য।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর