× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার , ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

নারী ফুটবলেও বসুন্ধরার লক্ষ্য শিরোপা

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
২৭ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার

আগমনেই বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা জিতেছে বসুন্ধরা কিংস। এবার নারী লীগের শিরোপা চায় ক্লাবটি। সে লক্ষ্যে চার বছর পর শুরু হতে যাওয়া লীগে সেরা দল গড়েছে কর্পোরেট এই প্রতিষ্ঠানটি। গতকাল দলবদলের শেষ দিনে ব্যান্ডপার্টি বাজিয়ে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) এই দলটির পক্ষে নাম নিবন্ধন করেন সাবিনা খাতুন, মারিয়া মান্ডারা। তবে শেষ মুহূর্তে শেখ রাসেল নাম প্রত্যাহার করে নেয়ায় দল পাননি জাতীয় দলের অনেক ফুটবলার।
দলবদল শেষে ক্লাবের সভাপতি ইমরুল হাসান বললেন, ‘আমরা শক্তিশালী দল গঠন করার চেষ্টা করেছি। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়েই লীগে খেলতে চাই’। এবার বসুন্ধরা কিংস ছাড়া প্রিমিয়ার লীগের আর কোনো ক্লাব অংশ নিচ্ছে না- এটাকে দুঃখজনক বিষয় হিসেবে আখ্যা দিয়ে বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি বলেন, বাফুফে’কে অনুরোধ করবো এই লীগটা যেন নিয়মিত হয় এবং প্রিমিয়ার লীগের ক্লাবগুলোর জন্য যেন বাধ্যতামূলক করা হয় মেয়েদের লীগে খেলা’।
মেয়েদের পারিশ্রমিক নিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে আমাদের মেয়েদের ভালোই অর্থ দিয়েছি। ২ থেকে ৫ লাখ টাকা পেমেন্ট ছিল। সবচেয়ে বেশি পাচ্ছে সাবিনা। বসুন্ধরা কিংসের দলবদল অনুষ্ঠানে বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ জানান, ‘প্রিমিয়ার লীগের ক্লাবগুলোকে বার বার অনুরোধ করেও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। একারণেই অন্যদের নিয়ে লীগ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।’ এবারের লীগে মোট আটটি ক্লাব অংশ নেবে। বসুন্ধরা কিংস নারী দলের কোচ শরিফা অদিতি বললেন, ‘আমরা শক্তিশালী দল গঠন করেছি। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্যই খেলবো।’

বসুন্ধরার পক্ষ থেকে সব ধরনের সুবিধাই দেয়া হচ্ছে মেয়েদের। কোচিং স্টাফসহ আরো অনেক সুবিধা রয়েছে ক্লাবটিতে। তবে শেষ মুহূর্তে  শেখ রাসেল নাম প্রত্যাহার করে নেয়ায় মারিয়া মান্ডা ও মনিকার সঙ্গে  গোলরক্ষক রূপনাও যোগ দিয়েছেন বসুন্ধরা কিংসে। এরা দল পেলেও জাতীয় দল ও বয়সভিত্তিক দলের মারজিয়া, ঋতুপর্ণা চাকমা, জুনিয়র শামসুন্নাহার, সাজেদা, সুলতানা, রত্না, অনাই, আনুচিং, রাজিয়া, নাজমা, সুরমা, সোহাগী কিসকু ও নার্গিসরা থেকে গেছেন লীগের বাইরে। প্রিমিয়ার লীগের অন্য ক্লাবগুলো লীগে না আসায় হতাশ মারিয়া মান্ডা। তিনি বলেন, ‘এখনো আমাদের ৩০/৩৫ জন ফুটবলার দল পায়নি। প্রিমিয়ার লীগের দলগুলো আসলে এই অবস্থা হতো না।’ জাতীয় দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন বললেন, ‘বসুন্ধরা কিংসকে ধন্যবাদ দারুণ একটা দল গঠন করার জন্য। আশা করি, এই দল নিয়ে আমরা ক্লাবকে লীগ শিরোপা উপহার দিতে পারবো।’ এদিকে গতকাল দলবদল করেছে সুনামগঞ্জের ক্লাব স্বপ্নচূড়া। তাদের দলে জাতীয় দলের তিনজন ফুটবলার রয়েছেন। এদের বাইরে আসরে অংশ নেয়া দলগুলো হলো  এসি উত্তরবঙ্গ, বেগম আনোয়ারা স্পোর্টিং ক্লাব, নাসরিন স্পোর্টিং ক্লাব, কাচারিপাড়া একাদশ, কুমিল্লা ইউনাইটেড ও স্পার্টান এমকে গ্যালাকটিকো সিলেট এফসি। ৩১শে জানুয়ারি লীগের খেলা শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর