× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২ ডিসেম্বর ২০২০, বুধবার

কুমিল্লায় করোনায় ৩ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৫৭

করোনা আপডেট

স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে | ২১ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১১:০৮

কুমিল্লায় করোনায় ৩ জনের মৃত্যু হয় ও আক্রান্ত হয়েছে ৫৭ জন । এ নিয়ে জেলায় আক্রান্ত ৪২৯।
কুমিল্লায় এক দিনেই করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হয়ে মারা গেছেন তিনজন। গত মঙ্গলবার (১৯ মে) করোনার লক্ষণ-উপসর্গ নিয়ে তাদের মৃত্যু হয়। পরে নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে বৃহস্পতিবার জানা যায়, তারা তিনজনই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন।
মারা যাওয়া এ তিনজন চান্দিনা উপজেলার বল্লারচর গ্রামের পঞ্চার্শোধ্ব ব্যক্তি, একই উপজেলার নাওতলা গ্রামের এক ব্যক্তি (৬৭) ও মুরাদনগর উপজেলার গাজীপুর গ্রামের এক বৃদ্ধ (৭৩)। এ নিয়ে জেলায় করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন ১৮ জন।
চান্দিনা উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আহসানুল হক বলেন, ‘গত মঙ্গলবার ভোরে জ্বর, সর্দি ও কাশির উপসর্গ নিয়ে মারা যান উপজেলার ৮০ ও ৬৮ বছরের দুই বৃদ্ধ। পরে খবর পেয়ে আমরা ওই দিন সকালে নমুনা সংগ্রহ করি।
আজ (গতকাল) নমুনা প্রতিবেদনে তাঁদের পজিটিভ আসে। এ নিয়ে চান্দিনায় একই দিনে এ পর্যন্ত তিনজন করোনায় মারা গেছেন।’
মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাজমুল আলম বলেন, উপজেলার গাজীপুর এলাকার ৭৩ বছরের ওই বৃদ্ধ গত মঙ্গলবার ভোরে হৃদ্রোগে মারা গেছেন বলে পরিবারের সদস্যরা দাবি করেন। কিন্তু এলাকার লোকজনের দাবি ছিল, তিনি করোনায় মারা গেছেন। পরে স্বাস্থ্যকর্মী দিয়ে তাঁর নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তাঁর নমুনা পজিটিভ আসে।
এ নিয়ে কুমিল্লা জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৮ জন। এর মধ্যে দেবীদ্বারে এক নারীসহ ৯ জন, মুরাদনগরে ৩ জন, চান্দিনায় ৩ জন, কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে ১ জন ও আদর্শ সদর উপজেলায় ১ জন। এছাড়াও ঢাকায় আক্রান্ত হয়ে জেলার মেঘনা উপজেলার এক ব্যক্তি নিজ বাড়িতে মারা যান। চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. গাজী মাহমুদুল হাসান জানান, চান্দিনা উপজেলার নাওতলা গ্রাম থেকে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ২জনের পরিবার থেকে মৃত দুইজনসহ মোট ৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিলো। এদের মধ্যে একজন মৃত ব্যক্তি ছাড়া সবারই করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। নাওতলা গ্রামের ওই দুই ব্যক্তির দুটি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।
তিনি আরও জানান, জনতা ব্যাংক চান্দিনা শাখার হিসাব বিভাগের এক কর্মকর্তা ও বল্লারচর গ্রামের একজন এর নমুনা রিপোর্টেও করোনা পজিটিভ এসেছে।
নাঙ্গলকোটে উপজেলায় বৃহস্পতিবার ২০ মাস বয়সী নাদিয়া সুলতানা নামের এক শিশু ও তার পরিবারের ৪জন সহ গত ২৪ ঘণ্টায় ৮জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে এ উপজেলায় ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে ২৪ জন।
আক্রান্তরা হলেন, উপজেলার দৌলখাঁড় ইউপির বাতাবাড়িয়া গ্রামের পল্লী চিকিৎসক ফারুক (৪০), তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম (২৫), মেয়ে ফারিয়া আক্তার (৭) ও ২০ মাস বয়সী শিশু কন্যা ফাবিয়া জান্নাত করোনা পরীক্ষায় পজেটিভ হয়েছেন। নতুন করে আক্রান্তের মধ্যে বাকি চারজন হলেন বটতলী ইউনিয়নের কাশীপুর গ্রামের জোহরা বেগম (৫০), তার মেয়ে জেরিন (১৭), ছোট মেয়ে তানজিনা (৮) ও মৌকরা ইউপির খাঁটাচৌ গ্রামে বেলাল হোসেনের ছেলে শরিফুল ইসলাম (২৪)।
উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ দেব দাস দেব আক্রান্তদের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত সোমবার স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে উপজেলা র‌্যাপিড রেসপন্স টীম আক্রান্তদের সহ মোট ২২ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠায়। বৃহস্পতিবার ৮ জনের রিপোর্ট পজেটিভ আসে। তিনি আরো বলেন, এ পর্যন্ত মোট ৩শ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। এদেরমধ্যে ২শ ৭০ জনের রিপোর্ট আসে। এ নিয়ে পুরো উপজেলায় ২৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়।
এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী অফিসার লামইয়া সাইফুল বলেন, খবর পেয়ে থানা পুলিশের সহযোগিতায় ওই এলাকার করোনা আক্রান্তদের বাড়ি সহ বেশ কয়েকটি বাড়ী লকডাউন করা হয়েছে। পাশাপাশি তাৎক্ষণিক পুলিশ পাঠিয়ে তাদেরকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।
কুমিল্লা সদর হাসপাতালের আরো একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। কুমিল্লা পিডিবির একজন করোনায় আক্রান্ত। শহরেরপুরাতন মৌলভী পাড়ায় করোনায় মারা যাওয়া ব্যাংক কর্মকর্তা মাহাবুব এলাহীর বাড়ির একজন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। শহরের ঝাউতলার প্রিন্স রোডের একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।
জেলায় আজ ৫৭ জনের করোনা পজেটিভের মধ্যে দেবীদ্বারে ১২ জন, কুমিল্লা সদরে ১০ জন, সিটি করপোরেশনে ৪ জন, মুরাদনগর ৯ জন, চান্দিনায় ৯ জন, নাঙ্গলকোটে ৮জন, লাকসামে ২ জন, লালমাই, দেবীদ্বার, তিতাসে ১ জন করে আক্রান্ত
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন ডা.নিয়াতুজ্জামান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর