× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৯ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার

পারভিন ববি শিকার হন বলিউড এর ড্রাগ মাফিয়া সিন্ডিকেটের

ভারত

জয়ন্ত চক্রবর্তী , কলকাতা | ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:২১

(ড্রাগের সঙ্গে বলিউডের নাম জড়িয়েছে বারবার। মাফিয়া কিংবা আন্ডারওয়ার্ল্ড ডনদের  সঙ্গে বলিউডের যোগাযোগও দীর্ঘদিনের। অবাধ যৌনতা যেন বলিউডের অঙ্গ। এই নিষিদ্ধ দুনিয়া নিয়ে মানবজমিন এর অনুসন্ধানের আজ দ্বিতীয় পর্ব )

সত্তরের দশকে লাস্যময়ী অভিনেত্রী হিসেবে পারভিন ববির  নামডাক ছিল।  যৌবনের পসরা সাজিয়ে তিনি উপস্থিত থাকতেন বলিউড এর বিভিন্ন নৈশ পার্টিতে।  চরিত্র ছবিতে অভিনয়ের সময় তিনি সুদর্শন ক্রিকেটার সেলিম দুরানির প্রেমে পড়েন এবং বিবাহিত  সেলিমের সঙ্গে সেই প্ৰেম দীর্ঘস্থায়ী হয়নি।  পানপাত্রকে এরপর সম্বল করেন পারভিন।  দুর্জনেরা বলে এই সময় কো স্টার অমিতাভ বচ্চনের প্রেমে পড়েন পারভিন।  সেটাও ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়।  উত্তরপর্বে প্রতিষ্ঠিত এক পরিচালকের সঙ্গে প্ৰেম।   ফুলদানির বাসি  ফুলের মতো পরিত্যাক্ত হতে দেরি হয়নি।  সকলেই পারভিন এর সুন্দর হিল্লোল তোলা দেহটির জন্যে ব্যাকুল ছিলেন।  একজনও তাঁর মনের হদিস নেননি।  এই অবস্থায় পারভিনকে টোপ  হিসেবে ব্যবহার করা শুরু করলো বলিউডের মাফিয়ারা।  দুবাই থেকে আরম্ভ করে বাহরাইন,  কুয়েতের ধনকুবের শেঠদের জালে তুলতে লাগলো তারা পারভিনকে টোপ হিসেবে ব্যবহার করে।  পারভিন তখন বলিউডের প্রতিষ্ঠিত নায়িকার ভূমিকা ছেড়ে এক আন্তর্জাতিক কলগার্ল।  গাঁজা দিয়ে শুরু । এরপর মারিজুয়ানা,  কোকেন পারভিনের প্রতি রাতের সঙ্গী।  এরপর একদিন আর পারভিনের ফ্ল্যাটের দরজা খুললো না।   কদিন পরে উদ্ধার হল তার পচা গলা দেহ।   নয়ের দশকে প্রতিভাময়ী বেবি ডল দিব্যা ভারতীর  একটি পার্টি চলাকালীন ছাদ  থেকে পড়ে  মৃত্যুর  পেছনেও   বলিউডের রেভ  পার্টির ভূমিকা ছিল বলে অনেকের সন্দেহ।  যদিও স্বামী সাজিদ নাদিয়াদওয়ালা  ওই পার্টিতে হাজির ছিলেন। ছিলেন মাফিয়া ডনরাও।  দিব্যা ভারতীর মৃত্যু   যেন রহস্য হয়েই থেকে গেল।  যেমন পর্দা উঠল না জিয়া খানের মৃত্যু রহস্যেরও। আসলে বলিউডে দেদার টাকা ওড়ে।   কিছু কিছু তারকা আছেন যাঁদের পারিশ্রমিক ছবি পিছু পঞ্চাশ কোটি।  যেখানে টাকা সেখানেই অনিশ্চয়তা,  জায়গা হারানোর ভয়।  সেখানেই আশ্রয় দেয়ার জন্যে মাফিয়াদের আনাগোনা।  ড্রাগ সিন্ডিকেট এর পদচারণা। সুন্দরী স্বল্পবসনাদের ইশারা।  এই নিয়েই বলিউড।   এখানে প্রতিষ্ঠিত নায়ককেও বন্দী   হতে হয় মাফিয়া যোগের জন্যে ।  যেমন হয়েছিল সঞ্জয় দত্তের ক্ষেত্রে।                   
(চলবে...)।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর