× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৯ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার

সংবাদপত্র, টিভি নয় দেশকে বাঁচান ডিজিটাল মিডিয়ার হাত থেকে, সুপ্রিম কোর্টে কাতর আবেদন সরকারের

ভারত

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা | ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার, ৯:৩৯

সুদর্শন টিভির বিন্দাস বোল অনুষ্ঠানটি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত মামলায় সোমবার দ্বিতীয়বারের জন্যে দেশের ডিজিটাল মিডিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করার কথা বলল ভারত সরকার। সোমবার কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের পক্ষ থেকে এক আবেদনে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়, ইন্দু মালহোত্রা এবং কে এম জোসেফের তিন সদস্যের বেঞ্চকে বলা হয়, দেশে সংবাদপত্র ও টিভিকে নিয়ন্ত্রণ করার বহু রেগুলেটরি বোর্ড আছে। কিন্তু ওয়েব এ ডিজিটাল মিডিয়ার চ্যানেল এবং নিউজ পোর্টালকে নিয়ন্ত্রণ করার কোনও অস্ত্র নেই। ওয়েব চ্যানেল এবং নিউজ পোর্টাল কোনও ভৌগোলিক সীমারেখার মধ্যে পড়েনা। ফলে, এগুলোর প্রসার এবং প্রভাব বিশ্বজুড়ে। এখনই এগুলো নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে দেশের সর্বনাশ হবে। হেটস্পিচ এবং মিথ্যা সংবাদ আরও বেশি করে ছড়াবে। সুপ্রিম কোর্টে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক জানায়, সংবাদপত্র শুরুর আগে বিশেষ অনুমতি নিতে হয়।
টিভির ক্ষেত্রে নিউজ চ্যানেলের জন্যে কুড়ি কোটি টাকা নেটওয়ার্থ থাকা জরুরি। পরে আরও পাঁচকোটি টাকার নেটওয়ার্থ এ চ্যানেলের সংখ্যা বাড়ানো সম্ভব। নন নিউজ এর ক্ষেত্রে পাঁচ কোটি টাকা নেটওয়ার্থ থাকা আবশ্যিক, পরে চ্যানেলের সংখ্যা বাড়তে থাকলে আড়াই কোটি টাকা নেটওয়ার্থ প্রতিটি চ্যানেলের জন্যে দরকার। অথচ ওয়েবে নিউজ চ্যানেল অথবা নিউজ পোর্টাল করতে গেলে একটি স্মার্ট ফোন থাকাই যথেষ্ট। সুপ্রিম কোর্টকে ভারত সরকার জানিয়েছে, এখনই এই ওয়েব এর প্রবাহ না আটকাতে পারলে দেশে ভয়াবহ হিংসা ও সন্ত্রাস নেমে আসবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর