× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১ নভেম্বর ২০২০, রবিবার

যুক্তরাজ্যে প্রতি চার জনে একজন লকডাউনে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার, ৭:০৬

যুক্তরাজ্যে এক চতুর্থাংশ মানুষই নতুন ঘোষিত লকডাউনের মধ্যে পড়ছে। দেশটিতে শনিবার থেকেই লিডস, উইগান, স্টকপোর্ট এবং ব্ল্যাকপুলে বিধিনিষেধ চালু হচ্ছে। এরফলে এখানকার কেউ আর নিজ বাড়ি ছাড়া অন্য কারো বাড়িতে যেতে পারবেন না। ওয়েলস, সোয়ানসি এবং লানেলিতে এর ২৪ ঘন্টা পরই এই বিধিনিষেধ আরোপ করা হবে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

খবরে বলা হয়েছে, বৃটেনজুড়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের উচ্চহার ঠেকাতে নতুন করে বাধানিষেধ আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার। এরই অংশ হিসেবে সংক্রমণের হার বিবেচনায় বিভিন্ন অঞ্চলে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এতে নতুন এই লকডাউনের মধ্যে পড়েছেন দেশটির প্রতি ৪ জনের একজন। বুধবার থেকে স্কটল্যান্ডে বাধানিষেধ চলছে।
'আর' নাম্বার বৃদ্ধির কারণে এর আগে উদ্বেগ জানিয়েছিল বৃটিশ সরকার। 'আর' নাম্বার হচ্ছে, একজন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি কতজন নতুন মানুষকে করোনা আক্রান্ত করছে তার সংখ্যা। এটি এক এর নিচে থাকাকে নিরাপদ বিবেচনা করা হয়। তবে সম্প্রতি এটি বৃটেনে বৃদ্ধি পেয়ে ১.২ থেকে ১.৫ এর মধ্যে রয়েছে। ফলে আবারো গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। গত শুক্রবার দেশটিতে একদিনেই নতুন করে প্রায় ৭ হাজার মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ইংল্যান্ডে রাত্রিকালীন কারফিউ জারি রয়েছে। এছাড়া, নর্থইস্ট ও নর্থ-ওয়েস্ট ইংল্যান্ডে নতুন বাধানিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর