× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৩ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার

চিরনিদ্রায় শায়িত মাহবুবে আলম

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৩:৩৯

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার বেলা ১টার দিকে মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এর আগে বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে তার নামাজে জানাজা সম্পন্ন হয়। জানাজায় ইমামতি করেন সুপ্রিম কোর্ট জামে মসজিদের পেশ ইমাম আবু সালেহ মো. সলিম উল্লাহ। এরপর সহকর্মী, বিভিন্ন সংগঠন এবং রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তার মরদেহে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

জানাজায় অংশ নেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, সুপ্রিম কোর্টের (আপিল ও হাইকোর্ট) উভয় বিভাগের বিচারপতি, মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবৃন্দ, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দসহ দেশের বিভিন্ন বার থেকে আগত আইনজীবী ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা।

জানাজার পর মাহবুবে আলমের কফিনে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এছাড়া প্রধান বিচারপতি, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী এডভোকেট শ ম রেজাউল করিম, অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়, ঢাকা দক্ষিণের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ, বাংলাদেশ বার কাউন্সিল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, পুলিশের (মহাপরিদর্শক) আইজি, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট এএম আমিন উদ্দিন ও সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। এছাড়া ঢাকা (বার) আইনজীবী সমিতি, আইন, মানবাধিকার ও সংবিধান বিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন ল’ রিপোর্টার্স ফোরাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আইন সমিতি, গণতান্ত্রিক আইনজীবীর নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন সংগঠন ফুলেল শ্রদ্ধা জানান। সর্বশেষ আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাকে মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হয়।

রোববার সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মাহবুবে আলম।
জ্বর ও গলা ব্যাথা নিয়ে গত ৪ঠা সেপ্টেম্বর তিনি সিএমএইচ হাসপাতালে ভর্তি হন। ওই দিনই করোনা পরীক্ষা করালে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। গত ১৯শে সেপ্টেম্বর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। এরপর থেকে সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
জামাল
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৭:৩০

অনেকেই মরন কে বুঝতে চায় না কিনতু যখন বাতাস আর নাক দিয়ে নিতে পারেনা কত কিছু করে বাচতে চায় কিনতু পারে না এখানেই বাহাদুরী কুপকাত।কাজেই হিসাব হবে সবকিছুর যত বড় বাহাদূর হোক না

Md. Harun al-Rashid
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৫:৩০

ইমানদার মৃতের পারলৌকিক শান্তি কামনায় পূণ্য হয়। মরহুম মাহবুবে আলম ও কবরে শান্তিতে থাকুন। প্রায়ই মৃতের কবরের অবস্হানকে চির নিন্দ্রা বা ঘুমের সাথে তুলনা করা হয় যেন মৃত্যু আর নিন্দ্রা পরস্পরের substitutes. চাইলে যেমন ঘুমিয়ে নেয়া যায় কিন্তু চাইলেই কি চির নিন্দ্রা বা মৃত্যু বরন করা যায় ? আর যারা চাইলেই মরে যান সেটা অপমৃত্যু। সমাহিত ব্যক্তি কি নিন্দ্রা যাচ্ছেন নাকি অন্য কোন অবস্হায় আছেন তা অনুমান করে বলার অবকাশ কোথায়। শুধু দেখা যায় কবরে শুইয়ে মাটি দিয়ে ঢেকে অন্ধকার করে দেয়া হয়। ইসলামি বিশ্বাস ও আকিদায় সকল মৃতের সওয়াল জবাব হয়। তা হলে মৃতের চির নিন্দ্রা আর চির থাকেনা।

অন্যান্য খবর