× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৩১ অক্টোবর ২০২০, শনিবার

পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার নামে টাকা আদায়সহ হয়রানির অভিযোগ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে | ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার, ৮:০২

পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার নামে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে টাকা আদায়সহ হয়রানির অভিযোগে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদান করেছে কুড়িগ্রামের কেদার ইউনিয়নের ম-লের বাজারচর, চর বিষ্ণুপুর এলাকাবাসী।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দালাল চক্রের মাধ্যমে দরিদ্র কৃষকদের কাছ থেকে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে মিটার বাবদ ৬ থেকে সাড়ে ৬ হাজার টাকা পর্যন্ত নিয়ে থাকেন। যারা এর বেশি টাকা দেয় তাদের বিদ্যুৎ তাৎক্ষণিক সংযোগ দেয়া হয়। এবং যারা টাকা দিতে পারে না তাদের সংযোগ দিতে গড়িমসি করে। কেউ এর প্রতিবাদ করলে তাকে দেয়া হয় উত্তম মধ্যম। এলাকার খতিবর রহমান, নুরুন্নবী, গিয়াস উদ্দিনসহ অন্যরা অভিযোগ করেন, তারা মিলন মিয়াকে টাকা দিয়েও সংযোগ নিতে পারেননি। অথচ প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ পৌঁছে দেয়ার ঘোষণা দিলেও কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পল্লী বিদ্যুৎকে তাদের বাণিজ্যকেন্দ্র হিসেবে পরিণত করে রেখেছে। এদিকে সাংবাদিক আতিকুর রহমান এ সংক্রান্ত সংবাদ পরিবেশ করায় তাকে লাঞ্ছিতসহ প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, এর আগে এলাকার বাবুল, নুরুন্নবী ও মোকলেস প্রতিবাদ করলে তাদের ওপর চড়াও করেন পল্লী বিদ্যুৎ অভিযোগ কেন্দ্র ইনচার্জ খোরশেদ আলম। এলাকাবাসী বলেন, রংপুর বিভাগীয় কমিশনারের কাছে পল্লী বিদু্যুতের নামে হয়রানির অভিযোগ দেয়া সত্ত্বেও এখনো তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়। এ ব্যাপারে বিভাগীয় কমিশনারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর