× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৩১ অক্টোবর ২০২০, শনিবার

যৌতুক না দেয়ায় গৃহবধূকে হত্যাচেষ্টা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন জাহানারা

বাংলারজমিন

মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি | ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার, ৮:০৯

  মাগুরার মহম্মদপুরে যৌতুক না দেয়ায় নির্যাতনের শিকার হয়ে জাহানারা খাতুন (২২) নামের এক গৃহবধূ মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। তাকে স্বামী, শাশুড়ি ও দেবর মিলে জোরপূর্বক হারপিক খাইয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পরে তাকে এলাকাবাসী উদ্ধার করে মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন ওই গৃহবধূ। নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ জাহানারা উপজেলার রায়পাশা গ্রামের আসাদ তালুকদারের মেয়ে। গত ১৫ই জুন উপজেলার দীঘা ইউনিয়নের দীঘা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

গৃহবধূর বাবার বাড়ি থেকে জানান, যৌতুকের জন্য নিয়মিত চাপ দেয়া হতো জাহানারা খাতুনকে।
তিন মাস আগে বিদেশ থেকে বাড়িতে এসে অটো কেনার জন্য এক লাখ টাকা দাবি করে জাহানারার স্বামী বিল্লাল মোল্যা। টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের শিকার হতে হতো নিয়মিত। এ ছাড়া তার স্বামী, শাশুড়ি ও দেবর মিলে জোরপূর্বক তাকে হারপিক খাইয়ে হত্যার চেষ্টা করে।
নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ জাহানারা কান্না জড়িতকণ্ঠে তার স্বামীসহ শশুরবাড়ির লোকজন নির্যাতন করে জোর করে হারপিক তার মুখে ঢুকিয়ে দেয়। আমি বাঁচতে চাই। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। তবে জাহানারার শ্বাশুড়ী পুত্রবধূকে নির্যাতন করে জোরপূর্বক হারপিক পাওয়ানোর বিষটি অস্বীকার করেন।    
এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানার ওসি তারক বিশ^াস জানান, এ বিষয়ে  লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর