× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৩১ অক্টোবর ২০২০, শনিবার
ডেইলি মেইলের রিপোর্ট

জেলখানায় খুনির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার, ১২:৫৭

বত্রিশ বছর বয়সী যুবতী লরেন ম্যাকইনটায়ার। তার পরিচয় তিনি যুক্তরাজ্যের নিউপোর্ট আলবেনিতে অবস্থিত এইচএমপি আইসলে জেলখানার একজন প্রহরী ছিলেন। কিন্তু এ সময়ে তিনি ওই জেলের ডাবল খুনের এক আসামীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করেছেন। ওই আসামীর নাম অ্যানড্রু রবার্টস। সে ২০০৩ সালে গার্লফ্রেন্ড ও তার এক মেয়েকে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছে। ওই জেলখানায় চার মাস দায়িত্ব পালন করেন লরেন। এ সময়ই তার চোখ পড়ে অ্যানড্রু রবার্টসের দিকে। আস্তে আস্তে তার সঙ্গে মন দেয়া নেয়া হয়।
প্রেমে জড়িয়ে পড়েন দু’জন। জেলখানার ভিতরেই স্থাপন করেন শারীরিক সম্পর্ক। এ অভিযোগে গত সপ্তাহে আদালতে বিচারের জন্য তোলা হয় লরেনকে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডেইলি মেইল।
উল্লেখ্য বান্ধবী লুইস এল’হোম ও তার আট মাস বয়সী  মেয়ে টিয়াকে সাউথ ওয়েলসে হত্যা করে রবার্টস। হত্যার পর পালিয়ে যায় রবার্টস। এর আগে লাশের গায়ে সুগন্ধি স্প্রে করে যায়, যাতে পচন ধরলে দুর্গন্ধ না ছড়ায়। তার বান্ধবী ও মেয়ের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ অভিযোগে তাকে অভিযুক্ত করা হয় ২০০৩ সালে। তার সঙ্গেই প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন লরেন।
গত সপ্তাহে এ অভিওেযাগে তাকে উইটে ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে তোলা হয়। এ সময় তিনি ছিলেন হালকা নীল পোশাক পরা। এদিন তিনি শুধু তার নাম ও জন্ম তারিখ নিশ্চিত করেন। পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত তাকে শর্তহীন জামিন দিয়েছে আদালত। পরবর্তী শুনানি হবে আগামী মাসে নিউপোর্ট ক্রাউন কোর্টে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর