× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার

আটকের পর ছাড়া পেলেন রাহুল গান্ধী

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৪:১৫

দিল্লি-উত্তর প্রদেশ হাইওয়েতে নেতাকর্মীদের নিয়ে মার্চ করার সময় হেনস্থার শিকার হয়েছেন ভারতের বিরোধীদলীয় নেতা রাহুল গান্ধী। এরপর তাকে সাময়িক সময়ের জন্য আটক করে দিল্লিতে নিয়ে আসে পুলিশ। সর্বশেষ তাকে ও তার সঙ্গে আটক হওয়া তার বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে মুক্তি দিয়েছে পুলিশ। রাহুল জানিয়েছেন, তাকে ঘাড়ধাক্কা দেয়া হয়েছে। এরপর রাস্তায় ফেলে লাঠিচার্জ করা হয়েছে। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন তার বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। এ খবর দিয়েছে এনডিটিভি।

সম্প্রতি হাথরাস নামক স্থানে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক নারী। তিনি পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
রাহুল গান্ধী কংগ্রেস নেতাদের নিয়ে ওই ভিকটিমের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চান। তবে তাদের আগমন ঠেকাতে ১৪৪ ধারা জারি করে কর্তৃপক্ষ। রাহুল গান্ধী এরমধ্যেই সেখানে পৌঁছাতে চাইলে বাধা দেয় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তখন পুলিশের সঙ্গে তর্কাতর্কি শুরু হয় রাহুলের। এসময় পুলিশ তাকে সাবধান করে জানায়, আপনারা ১৪৪ ধারা ভাঙছেন। জবাবে রাহুলকে বলতে শোনা যায়, ১৪৪ ধারার অপব্যবহার করছেন আপনারা।

এরপরই শুরু হয় ধস্তাধস্তি। রাহুল গান্ধীকে ফেলে দেয়া হয় রাস্তায়। সেখানে চরম হেনস্থার শিকার হয়েছেন বলে জানিয়েছে রাহুল। এরপরই রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে একটি সাদা রঙের গাড়িতে তুলে হাইওয়ে ধরে দিল্লির দিকে চলে যায় পুলিশ। ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে সে গাড়ির পাশাপাশি ছুটছে আরো কিছু গাড়ি। সেগুলো কংগ্রেস নেতাদের গাড়ি ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। এসময় ঘটনাস্থলে থাকা অন্য কংগ্রেসকর্মীরা রাস্তা অবরোধ করে বসে পড়েন। যতক্ষণ না রাহুলকে ছাড়া হচ্ছে, তারা অবরোধ তুলবেন না জানিয়ে দেন। রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে হাইওয়ের পাশের একটি গেস্টহাউজে রাখা হয়।
হেনস্থার স্থান থেকে রাহুল গান্ধী বলেন, আমাকে রাস্তায় ফেলে দেয়া হয়েছে, লাঠিচার্জ করা হয়েছে। আমি প্রশ্ন করতে চাই, দেশে কি শুধু মোদিজীই হাঁটতে পারবেন? একজন সাধারণ মানুষের কি হাঁটার অধিকার নেই? আমাদের গাড়ি থামিয়ে দেয়া হয়েছে, তাই আমরা হাঁটতে শুরু করেছিলাম।
এদিকে, রাহুল গান্ধীর এই চেষ্টাকে মিডিয়ার নজর কাড়ার চেষ্টা হিসেবে দাবি করছে বিজেপি। দলটির নেতা ও উত্তর প্রদেশের মন্ত্রী সিধার্থ নাথ সিং বলেন, রাহুল গান্ধীর এ রেকর্ড রয়েছে। তিনি বিদেশ থেকে ফিরেই এ ধরণের ফটোসেশনে ব্যস্ত হয়ে পরেন। রাহুল বা প্রিয়াঙ্কা কেউই প্রতিবাদের বিষয়ে আন্তরিক নন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Mohammed Azam
৩ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৭:২৯

Both country Bangladesh and India ruling by Hindu nationalist Thugs and RAW. You will see similarity when treating opposition party.

Mohammed Azam
৩ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৭:২৯

Both country Bangladesh and India ruling by Hindu nationalist Thugs and RAW. You will see similarity when treating opposition party.

এস এম ফরিদ আহমেদ
১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:৪০

ভারতের অবস্তাতো দেখছি বাংলাদেশের থেকেও খারাপ!

Palash
১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৫:১৭

বাংলাদেশে এমন অবস্থার মুলত কংগ্রেসই দায়। কেমন লাগছে এখন!

samsulislam
১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৫:০৩

মিঃ রাহুল সৌদিতে গিয়ে গণতন্ত্র করেন।এখানে লাঠি চার্জ করছে।সেখানে শিরচ্ছেদ করবে।

MD MAZNUL HAQUE
১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৫:২৪

pap bapke charena

Mohammad Pathan Jewe
১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৪:১১

Pap bap ke chare na. Congress destroyed Democratic process in Bangladesh. Now, it's their turn to taste it.

ফরিদ আহম্মেদ
১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৩:২৫

যেই কংগ্রেস বাংলাদেশের গনতন্রকে ধংশ করেছ সেই কংগ্রেস আজ একই গেরা কলে আটকা পরেছে।

অন্যান্য খবর