× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা হবে অনলাইনে

শিক্ষাঙ্গন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৬:৫১
ফাইল ছবি

সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভাইস চ্যাঞ্চেলরদের (ভিসি) সংগঠন বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদ। এই পরীক্ষা হবে অনলাইনে। আজ শনিবার সন্ধ্যায় ভর্তির বিষয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ভিসিরা। সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে ভার্চ্যুয়াল ওই সভায় বিভিন্ন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিরা অংশগ্রহণ করেন।

গুচ্ছভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ভিসি ড. অধ্যাপক মীজানুর রহমান বলেন, বৈঠকে সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিদের সম্মিলিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. হারুন অর রশিদ বলেন, আমরা অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা নেবার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধু ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মুনাজ নূরের উদ্ভাবিত সফটওয়্যার ব্যবহারের প্রস্তাব এসেছে। বৈঠকে সবাই এ ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
PritomRoy
১৭ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৬:৫৯

যাদের ভালো স্মার্টফোন, কম্পিউটার নেই অথবা এমন অনেক অঞ্চল আছে যেখানে ভালো নেট কানেকশন পর্যন্ত পায় না। সেই সব অঞ্চলের ব্যাক্তিরা কিভাবে অনলাইনে অংশগ্রহণ করবে ?

সোহেল মাহমুদ
১৭ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ১০:৪০

হাজারো নিয়ম কানুন করে পরীক্ষায় নকল বন্ধ করা যায় না, আর অনলাইনে পরীক্ষা হলেতো শতভাগ নকল হবে নিশ্চিত।

Captain Md Zakir Hos
১৭ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৯:০১

অনলাইনে পরীক্ষা নিলে দুর্নীতির সম্ভাবনা বেশি থাকবে এবং মেধাবী ছাত্ররা তাদের মেধার যথাযথ মূল্যায়ন থেকে বঞ্চিত হবে। আমাদের শতকরা ৮০% ছাত্রছাত্রী গ্রামে বসবাস করে। গ্রামে পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ এবং কানেক্টিভিটির অভাবে অনেক শিক্ষার্থী তাদের যোগ্য ফলাফল হতে বঞ্চিত হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক
১৭ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৯:২৮

সিদ্ধান্তটিতে যৌক্তিক কারনে একমত হতে পারছি না। পরীক্ষার্থী বাসায় বসে অনলাইনে পরিক্ষা দিলে সেখানে জন প্রতি ৫০০০ টাকায় বিশজন এক্সপার্টের উপস্থিতিতে অনেক ভাল পরিক্ষা দেওয়ার সুযোগ তৈরী হয়। যেটা আটকানোর সুযোগ খুব কম।

শ্রাবণ
১৭ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৮:১৯

ভর্তিপরীক্ষা আমরা হলে বসে দিতে চাই।

আবুল কাসেম
১৭ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৭:২১

ভর্তি পরীক্ষার গুরুত্ব এতোটুকু যে, এখানে একজন শিক্ষার্থীর দীর্ঘদিনের উচ্চ শিক্ষার লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়নের সুযোগ আসে। যদি অনলাইন পরীক্ষার কারিগরি ত্রুটির কারণে কোনো পরীক্ষার্থী পরীক্ষা ঠিক মতো না দিতে পারার কারণে তার দীর্ঘদিনের লালিত সেই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হয়ে যায় তার দায় দায়িত্ব কে নেবে তা পরিষ্কার নয়। কিছু দিন আগে নটরডেম কলেজের ভর্তি পরীক্ষা অনলাইনে নিতে গিয়ে তাঁদেরকে অনেক বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়েছে। আর এদিকে বহু পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা বাতিল হয়ে গেছে। তারা হতাশাগ্রস্ত। অনলাইনে পরীক্ষার জন্য যে নির্ভরযোগ্য সার্ভার ও পরিবেশ দরকার পড়ে সেটার নিশ্চিতা দেয়া কতটা সম্ভব হবে সেটা ভাবতে হবে। কোনো শিক্ষার্থীর স্বপ্নভঙ্গ যেনো না হয় তা নিশ্চিত করা জরুরী। আর বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষাও অনলাইনে নয়। বিদ্যুৎ বিভ্রাটের জন্য ও ইন্টারনেট সাপ্লাই নিরবচ্ছিন্ন ভাবে অনেক সময় থাকে না বিধায় অনলাইনে পরীক্ষা নেয়া ঠিক হবে না। আর এসএসসির ফিজিক্স, ম্যাথ ও কেমিস্ট্রির নম্বর দেখে বুয়েটের সিলেকশন করাই হবে যুক্তি সঙ্গত।

অন্যান্য খবর