× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ নভেম্বর ২০২০, বুধবার

সেই স্বেচ্ছাসেবক ভ্যাকসিন নেননি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১২:১১

ব্রাজিলে করোনাভাইরাসের টিকার ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় অংশ নেয়া একজন স্বেচ্ছাসেবক মারা গেছেন। তবে চলমান পরীক্ষা অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা। কারণ, যে ব্যক্তি মারা গেছেন তিনি ছিলেন ‘কন্ট্রোল গ্রুপের’ সদস্য। তাদেরকে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয় না। ব্রাজিলের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিলেন্স এজেন্সি (এএনভিএসএ) গত বুধবার এ তথ্য জানিয়েছে গণমাধ্যমকে। ব্রাজিলে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় সমন্বয় করছে সাও পাওলোর ফেডারেল ইউনিভার্সিটি। সেখান থেকে আলাদাভাবে বলা হয়েছে, মৃত স্বেচ্ছাসেবক একজন ব্রাজিলিয়ান। সিএনএনের একজন সাংবাদিক বলেছেন, মৃত ওই ব্যক্তি একজন যুবক।
তার বয়স ২৮ বছর। তিনি রিও ডি জেনিরোতে বসবাস করতেন। কোভিড-১৯ জটিলতায় তিনি মারা গেছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আল জাজিরা। এতে বলা হয়, ব্রাজিলে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার পরীক্ষা অব্যাহত থাকবে। তবে কীভাবে, কেন ওই স্বেচ্ছাসেবক মারা গেছেন সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেনি ব্রাজিল। এক্ষেত্রে পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের বিষয়ে মেডিকেল গোপনীয়তার কথা উল্লেখ করেছে তারা। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি বলেছে, ব্রাজিলের এই ঘটনাটি সতর্কতার সঙ্গে নিয়ে তারা দেখতে পেয়েছেন তাদের টিকার ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় নিরাপত্তা নিয়ে কোনো উদ্বেগ নেই। উপরন্তু নিরপেক্ষ পর্যালোচনার মাধ্যমে ব্রাজিলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা এই পরীক্ষা অব্যাহত রাখার সুপারিশ করেছে।
উল্লেখ্য, অ্যাস্ট্রাজেনেকার কাছ থেকে এই টিকা কেনার পরিকল্পনা রয়েছে ব্রাজিলের। একই সঙ্গে রিও ডি জেনিরোতে ফিওক্রুজে অবস্থিত বায়োমেডিকেল রিসার্স সেন্টারে তৈরি করা হবে এই টিকা। অন্যদিকে সাও পাওলোতে গবেষণা কেন্দ্র বিউট্যানট্যান ইনস্টিটিউট পরীক্ষা করছে চীনের তৈরি সিনোভ্যাক টিকা।
এরই মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কমপক্ষে এক লাখ ৫৫ হাজার মানুষ মারা গেছেন ব্রাজিলে। মৃত্যুর দিক দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এক নম্বরে অবস্থান করছে। এরপরে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রাজিল। এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ৫৩ লাখ মানুষের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর