× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৬ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার
ঢাকা-১৮ উপ নির্বাচন

বিএনপির প্রার্থীর প্রস্তুতি সভায় হামলা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২২ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৫:৩৬

ঢাকা-১৮ আসনের বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেনের ঘরোয়া প্রস্তুতি সভায় হামলার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় ৪৮নং নম্বর ওয়ার্ড বিএনপি কাউন্সিলর আকবর আলী হোসেনের বাসায় এ প্রস্তুতি সভা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হামলার পর আর সেখানে কোন প্রস্তুতি সভা করা হয়নি বলে জানিয়েছেন বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর। বিএনপির অভিযোগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা ঢুকে হকিস্টিক দিয়ে পিটিয়ে আকবর হোসেন আলী, বিএনপি নেতা দেলোয়ার, ফারুক মোল্লা, মহিলা দল নেত্রী হাসিনা বেগম, যুবদল নেতা আতিক, শাহিনসহ বেশ কয়েকজনকে আহত করে। এসময় তারা বিভিন্ন আসবাবপত্র, দুটি গাড়ি, চারটি মোটর সাইকেল, ১৫০টি চেয়ার, ২০টি টেবিল ভাংচুর করে।

এ ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা-১৮ আসনের বিএনপি'র নির্বাচনী প্রধান সমন্বয়ক ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আমানুল্লাহ আমান বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চাই। আমরা চাই জনগণ নির্ভয়ে ভোটকেন্দ্রে যাবে। তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে। কিন্তু মার্কা দেয়ার আগেই প্রস্তুতি সভায় আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা আক্রমণ করে।
তারা কি করতে চায়? বিগত নির্বাচনে তারা বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর আক্রমণ করেছে, হামলা করেছে, হত্যা করেছে, মিথ্যা মামলা দিয়েছে। এই নির্বাচনেও তারা শুরু করছে। এ ব্যাপারে প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। আমরা লিখিত অভিযোগ পাঠিয়েছি। এ ঘটনায় যারা জড়িত তাদের গ্রেপ্তার করে শাস্তি দেয়ার দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে আমান উল্লাহ আরও বলেন, সরকার যদি কারচুপি করে, বিশৃঙ্খলা তৈরি করে তাদের দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করতে চায় তাহলে বিএনপি ছেড়ে দিবে না। আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীদের চ্যালেঞ্জে ছেড়ে দেয়া হবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কেন্দ্র থেকে প্রতিহত করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, ঢাকা উত্তর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি বজলুল বাসিত আনজু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলিম, এছাড়াও ঢাকা ১৮ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থী কফিল উদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান সেগুন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
কে এমন জিন্নাহ
২২ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:২৫

কর্মীদের উজ্জীবিত রাখতে নির্বাচন নিয়ে যাওয়া ভালো, এখানে জয়-পরাজয়ের বিষয় এর চেয়েও কর্মীদের অ্যাক্টিভ রাখা জরুরী বিদায় নির্বাচনে যাওয়াকে আমি সমর্থন করি।

মোঃ আজিজুল হক
২২ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৬:১১

আমি বুঝি না কেন বিএনপি কেন বার বার এই নির্বাচন নির্বাচন খেলায় অংশ গ্রহণ করে। বিএনপির নেতারাও এই করব এই করব করে কিন্তু আখেরে কিছুই করতে পারে না।

অন্যান্য খবর