× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৪ নভেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার

সরকারী পৃষ্ঠপোষকতায় ব্যাপকভাবে ঈদে মিলাদুন্নবী পালনের দাবি

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২৪ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৪:০৪

সরকারী পৃষ্ঠপোষকতায় ব্যাপকভাবে ঈদে মিলাদুন্নবী পালনের দাবি জানিয়েছে আর্ন্তজাতিক সাইয়িদুল আ’ইয়াদ শরীফ। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের আকরাম খাঁ হলে মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ‘ইয়াদ শরীফ উনার ফাযায়িল-ফযীলত প্রসঙ্গে এক সেমিনারে বক্তারা বক্তারা এ দাবি জানান।

সেমিনারে বক্তারা বলেন, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ-ই মহাপবিত্র ও মহা সম্মানিত ১২ই রবিউল আউয়াল শরীফ। যা মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার মূল তারিখ। তাই মহাপবিত্র ও মহা সম্মানিত ১২ই রবিউল আউয়াল শরীফ হাক্বীকীভাবে ব্যাপক জওক-শওক ও মহাসমারোহে পালনের মাঝেই দেশ ও জনগণের সর্বপ্রকার কামিয়াবি ও উন্নতী নিহিত রয়েছে। তাই আসন্ন পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ তথা পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ব্যাপক আয়োজনে ও মহাসমারোহে পালনে সর্বোচ্চ বাজেট বরাদ্দ করে সরকারী পৃষ্ঠপোষকতায় ব্যাপকভাবে পালনের উদ্যোগ নিতে হবে। এজন্য সকল মন্ত্রণালয় ও বিভাগে বিশেষ নির্দেশনা জারী করতে হবে।

তারা বলেন, পবিত্র সূরা ফাতহ শরীফ উনার ৯ নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক আদেশ মুবারক করেছেন, “তোমরা (উম্মতরা) মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার হাবীব নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের প্রতি ঈমান আনো এবং তোমরা নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার খিদমত মুবারক করো, সম্মান মুবারক করো ও সকাল-সন্ধ্যা অর্থাৎ সদা-সর্বদা উনার ছানা-ছিফত অর্থাৎ প্রশংসা মুবারক করো।” এই সম্মানিত আদেশ মুবারক পালনের মাধ্যমেই সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ বা ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পালিত হয়।

বক্তারা বলেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি মানবজাতির প্রতি আল্লাহ পাক উনার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বিলাদত শরীফ উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করা তথা সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ পালন করাকে ফরয করে দিয়েছেন। আর এ মুবারক নির্দেশ পালনার্থেই সমস্ত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালামগণ, হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণ এবং হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণ উনারা সারাজীবন আখিরী নবী, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তথা সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালন করেছেন। সেই ফরয ইবাদত আদায়ে রাজারবাগ শরীফে জারী করা হয়েছে, অনন্তকাল ব্যাপী সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ মাহফিল।
প্রতি হিজরী মাসে সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ তথা ১২ই শরীফ মাহফিল।

আলোচকরা বলেন, আসন্ন সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ মহাসমারোহে ব্যাপকভাবে পালনে বিশ্বের সকল দেশের প্রত্যেক সরকারের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হলো ১২টি বিষয় পালন করা ও জারী করা।

এ বিষয়ে বক্তারা বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে মানহানীকর কোন বিষয় প্রচার, প্রকাশ ও প্রদানকারীর শাস্তি মৃত্যুদন্ড দেয়া। সেজন্য আইন প্রণয়ন করা। পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ ব্যাপকভাবে পালনে সরকারীভাবে সর্বোচ্চ বাজেট বরাদ্দ করা। সর্বপ্রকার অশ্লীল ও অশালীন কাজ বন্ধ করা। সকল শ্রেণীর পাঠ্যপুস্তকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের সুমহান জীবনী মুবারক বাধ্যতামূলক করা।

১২টি বিষয় প্রসঙ্গে বক্তারা আরও বলেন, পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উপলক্ষে সকল সরকারী প্রতিষ্ঠানে ছাড় দেয়া এবং বিশেষ পণ্য সামগ্রী তৈরী করা। সর্বস্তরে পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম জারী করতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মতো স্বতন্ত্র শক্তিশালী গবেষণা কেন্দ্র এবং পৃথক মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা করা। মহাপবিত্র ১২ই শরীফ দিবসে দেশের সব মসজিদ-মাদরাসা, ইয়াতীমখানা, মাজার শরীফসহ সব গরীব, দুঃখীদের নতুন পোশাক, ওষুধ বিতরণ, নগদ অর্থ বরাদ্দ ও বিশেষ খাবার সরবরাহ করা। বিশেষ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা। বিশ্বব্যাপী পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ জারী করতে আন্তর্জাতিক সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উদযাপন মজলিশকে সর্বোচ্চ সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা করা।

সেমিনারে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন, দৈনিক আল ইহসান এবং মাসিক আল বাইয়্যিনাত পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক মুফতিয়ে আ’যম আল্লামা আবুল খায়ের মুহম্মদ আযীযুল্লাহ এবং শরীফস্থ ঐতিহ্যবাহী মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ মাদরাসার মুহতামিম ও মুফতি আল্লামা মুহম্মদ আলমগীর হুসাইন প্রমুখ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
shohid sadik
২৫ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ২:০০

Muslims are following the Al-quran and the Sohi Hadis such as Bokhari, Muslim etc. This type of amols are completely Bidat as Rasul (sm) and sahaba (Ra.) never observed his birth day these way.

মোঃ আলী আফরোজ শাহ
২৪ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৪:১৬

পবিত্র ইদ এ -মিলাদদুন্নবী সঃ পালন করা প্রত্যক মোমিনের পালন করা অবশ্য কর্তব্য । যার সৃষ্ঠি না কিছূই সৃষ্ঠি হতোনা ,যিনি সারা জাহানের রহমত ম্বরুপ তার প্রতি অসংখ্য দরূদ ও সালাম ।

অন্যান্য খবর