× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ নভেম্বর ২০২০, বুধবার

রংপুরে এএসআই’র বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ, আটক ২

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে | ২৭ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার, ৮:১৩

রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এক এএসআই’র বিরুদ্ধে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশের এএসআই রায়হানুল ইসলাম ওরফে রাজু ও বাড়ির ভাড়াটিয়া আলেয়াকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রংপুর নগরীর হারাগাছ থানার ময়নাকুঠি কচুটারী এলাকার নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিবিতে কর্মরত এএসআই রায়হানুল ইসলাম। এরই সূত্র ধরে রোববার সকালে রায়হান ওই ছাত্রীকে ক্যাদারের পুল এলাকায় স্থানীয় শহিদুল্লাহ মিয়ার ভাড়াটিয়া আলেয়া বেগমের বাড়িতে ডেকে আনে। সেখানে প্রথমে রায়হান ও পরে রায়হানের পরিচিত কয়েকজন যুবকও তাকে ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষণের শিকার মেয়েটি নিজেই হারাগাছ থানায় অবহিত করলে রাত সাড়ে ৮টার দিকে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং মেয়েটির পরিবারকে খবর দেয়। রাতে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে রাজুসহ ২ জনের নাম উল্লেখ করে হারাগাছ থানায় ধর্ষণ মামলা করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাজু ও আলেয়া বেগমকে আটক করে।
খবর পেয়ে রাতে হারাগাছ থানায় এসে মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন সাংবাদিকদের জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মেয়েটি ধর্ষণের কথা জানিয়েছে। এর মধ্যে রাজু নামের একজন পুলিশ সদস্যের কথা জানিয়েছে মেয়েটি। তবে রাজু ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল কিনা তা নিশ্চিত হতে তাকে পুলিশের জিম্মায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এদিকে এএসআই রায়হানুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে জানিয়েছেন রংপুর মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন। তিনি বলেন, গতকাল সোমবার দুপুরের দিকে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এ ছাড়া মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনে (পিবিআই) স্থানান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর