× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ নভেম্বর ২০২০, শুক্রবার

ফেনীতে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

অনলাইন

ফেনী প্রতিনিধি | ৩০ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ১০:৪৮

ফেনীর দাগনভূঞায় পৃথক দুটি সড়ক দূর্ঘটনায় তিনজন ও তিনজন আহত হয়েছে। শুক্রবার সকাল দাগনভূঞার বসুরহাট রোড়ের উত্তর গনিপুর এলাকায় লাল মসজিদের সামনে যাত্রীবাহি বাসের সঙ্গে সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে মো. জাকারিয়া (৩৫) ও আইনুল হক (৪০) নামে অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত ও তিনজন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন দাগনভূঞা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইমতিয়াজ আহমেদ।

নিহত জাকারিয়া সিরাজগঞ্জ জেলার ফুলবাড়ি থানার মো. সোলাইমানের ছেলে ও আইনুল হক নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া থানার নবাবপুর গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে।

দাগনভূঞা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল আউয়াল জানান, সকাল ফেনী থেকে যাত্রীবাহি সিএনজি একটি সিএনজি অটোরিকশা দাগনভূঞা বসুরহাট রোড এলাকায় পৌঁছলে বিপরীতদিক থেকে আসা যাত্রীবাহি ড্রিমলাইন বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে সিএনজি অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে উল্টে যায়। ঘটনাস্থলেই মো. জাকারিয়া ও আইনুল হক নামে অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত হন। এসময় আহত তিনজনকে উদ্ধার করে দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য দুইজনকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

দাগনভূঞা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইমতিয়াজ আহমেদ আরো জানান, নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও ক্ষতিগ্রস্থ অটোরিকশাটি জব্দ করেছে।
এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার রাতে দাগনভূঞায় মোটরসাইকেল চাপায় বাইসাইকেল চালক আবদুর রব (৭৬) নিহত হয়েছে। উপজেলার ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের নতুনপোল নামক স্থানে এঘটনা ঘটে।

এসআই আবদুল আউয়াল আরো জানান, স্থানীয় এতিমখানা বাজারস্থ এলাকার সাইকেল-রিক্সা গ্যারেজ’র স্বত্ত্বাধিকারী মেইকার আবদুর রব রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে নতুনপোল নামক স্থানে দ্রুতগতির একটি মোটরসাইকেল তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে তিনি গুরুত্বর আহত হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। খবর পেয়ে নিহতের স্বজনরা ময়নাতদন্ত ছাড়ায় মরদেহ বাড়ি নিয়ে যায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর