× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৬ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

মাস্ক ছাড়া সেবা নয়, প্রশাসনে নির্দেশনা জারি

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ৩০ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ৭:২৫

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ আসন্ন শীতে বাড়তে পারে এমন আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। এ অবস্থায় মাস্ক ছাড়া সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সেবা নেয়া যাবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রিসভা। ওই সিদ্ধান্ত নির্দেশনা আকারে সব মন্ত্রণালয় ও মাঠ প্রশাসনে পাঠিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সম্প্রতি এ নির্দেশনা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে সব মন্ত্রণালয়/বিভাগের সিনিয়র সচিব/সচিব, বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো হয়েছে। এতে বলা হয়, কোভিড-১৯ সংক্রমণের সম্ভাব্য সেকেন্ড ওয়েভ মোকাবিলায় মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করা, চিকিৎসা কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিবর্গ ছাড়া অন্য সকল ক্ষেত্রে পুনর্ব্যবহারযোগ্য কাপড়ের মাস্ক পরিধান করা, মাস্ক পরিধান বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তর/সংস্থা/প্রতিষ্ঠানের সামনে দৃশ্যমান স্থানে ‘মাস্ক ব্যবহার ব্যতীত প্রবেশ নিষেধ/নো মাস্ক নো এন্ট্রি’ অথবা ‘মাস্ক পরিধান করুন, সেবা নিন/ওয়্যার মাস্ক গেট সার্ভিস’ বিষয়ে ব্যানারে স্থাপন করতে হবে। কোভিড-১৯ প্রতিরোধে জারি করা পরিপত্রগুলোর নির্দেশনা বান্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া বাজার, শপিং মলসহ সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে বলা হয় নির্দেশনায়।
সর্বত্র মাস্ক ব্যবহারের নির্দেশনা সরকারের তরফে আগেই দেয়া হয়েছিল।
তবে মন্ত্রিসভার সর্বশেষ বৈঠকে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ এমন সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
৩০ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ৯:১৩

বাংলাদেশের মানুষ সতর্কতা অবলম্বন করায় বাংলাদেশে কভিডের প্রকোপ তুলনামূলকভাবে অনেক কম। আশা করি সরকারী এ নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে সবাই মানবে। তাইওয়ানে এক টানা ২০০ দিন নতুন আক্রান্ত নাই। বাংলাদেশ ও পারবে সংক্রমণ রুখে দিতে।

ক্ষুদিরাম
৩১ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ১০:০৯

মাস্কের ব্যাবহার তখনই নিশ্চিত করা যাবে যখন রাস্ট্র তার দিন আনে দিন খায় নাগরিকদের জন্য ফ্রী মাস্ক সরবারহ করতে পারবে। তানাহলে এটা কেবল কাগুজে ঘোষনার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে, বাস্তবায়ন সুদূর পরাহত !! তবে একটা কথা কেন জানি এই অধমের মাথায় ঘুরপাক খায় আর অধম জানতে চায়.................. আচ্ছা যারা মাস্ক পরে তাদের করোনা আক্রান্তের হার যারা মাস্ক পরেনি তাদের আক্রান্তের হারের চেয়ে বেশী কেন ? বিশ্বাস নাহলে সঠিক ডাটা সামনে এনে কথা বলুন !! তাহলে কি মাস্ক পরা মানে কেবলই বিভিন্য সুরক্ষা(?) কোম্পানী গুলোকে আরো বেশী ব্যাবসা করার সুযোগ করে দেয়া ? বিষয়টা হাস্যকর নয় বরং গভীর ভাবনার বিষয় !!

মাহবুবুর রহমান শিশির
৩১ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ১:২৩

সরকারকে স্বাগত জানাই এই সিদ্ধান্তের জন্য। এর দরকার ছিল।

অন্যান্য খবর