× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ নভেম্বর ২০২০, শুক্রবার
রয়টার্সের প্রতিবেদন

রেকর্ড সংক্রমণ, সক্ষমতার দ্বারপ্রান্তে যুক্তরাষ্ট্রের হাসপাতাল

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৩১ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ১০:২২

যুক্তরাষ্ট্রে রেকর্ড পরিমাণ করোনা সংক্রমণ নতুন করে সঙ্কট সৃষ্টি করেছে। সেখানকার হাসপাতালগুলো সক্ষমতার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে। শুধু একদিনে সেখানে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন কমপক্ষে ৯১ হাজার ২৪৮ জন। একদিনে মারা গেছেন প্রায় এক হাজার মানুষ। এমন এক ভয়াবহতার মধ্য দিয়ে সেখানে হতে যাচ্ছে ৩রা নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে বলা হয়, শুক্রবার নতুন করে যেসব মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন তাদের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রের পুরো জনসংখ্যার শতকরা প্রায় ৩ ভাগ। এরই মধ্যে এ বছর সেখানে করোনা ভাইরাসে মারা গেছেন কমপক্ষে দুই লাখ ২৯ হাজার মানুষ।
সরকারি তথ্য সমন্বিত করে এ তথ্য দিয়েছে রয়টার্স। রিপোর্টে বলা হয়, বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৯১ হাজার ২৪৮ ছিল। এর মধ্যে শুক্রবারের তথ্য বলছে, ১২টি রাজ্যে প্রতিদিন রেকর্ড সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। মারাত্মক আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে ৬টি রাজ্য থেকে রিপোর্টে বলা হয়েছে, তারা খুব বেশি রোগী পাচ্ছে। অক্টোবরে করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি বেড়ে গেছে শতকরা ৫০ ভাগেরও বেশি। এ সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৬ হাজার। মধ্য আগস্টের পর এ সংখ্যা সর্বোচ্চ। এর মধ্যে রয়েছে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ সুইংস্টেটগুলোর কয়েকটি। এগুলো হলো মিশিগান, নর্থ ক্যারোলাইনা, ওহাইও, পেনসিলভ্যানিয়া এবং উইসকনসিন। এ মাসে তৃতীয়বারের মতো বৃহস্পতিবার একদিনে করোনায় মারা গেছেন কমপক্ষে এক হাজার মানুষ। এই সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইউনিভার্সিটি অব ওয়াশিংটনের নতুন মডেল বলছে, আগামী মাস থেকে মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকবে। তা জানুয়ারিতে ৭২ হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে। উটাহ গভর্নর গ্যারি হারবার্ট টুইটে বলেছেন, উটাহতে যে পরিমাণে সংক্রমণ বাড়ছে তা সামাল দিতে পারছে না হাসপাতালগুলো। তাহলে বুঝুন কি ভয়াবহতার মোকাবিলা করছি আমরা।
রোড আইল্যান্ডে ব্রাউন ইউনিভার্সিটি স্কুল অব পাবলিক হেলথ-এর ডিন আশীষ ঝা বলেছেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহভাবে দেখা দিয়েছে। কিন্তু পর্যাপ্ত পরীক্ষার অভাব রয়েছে। তিনি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, সবচেয়ে বড় মহামারি দেখা দিয়েছে। তবে এখনও এর জন্য আমরা যথেষ্ট প্রস্তুত নই।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
৩০ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ১০:৩১

ট্রাম্পের উস্কানি মূলক বক্তব্যের কারণে রিপাবলিকান সমর্থক কেউ মাস্ক পরতে চায় না। লকডাউন বা বাধ্যতামূলক মাস্ক পরার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে। দেশের মানুষকে বিপথগামী করে মৃত্যু মুখে ঠেলে দিচ্ছেন।

অন্যান্য খবর