× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৫ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার

স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি বিকসকপের

শিক্ষাঙ্গন

স্টাফ রিপোর্টার
(২ মাস আগে) নভেম্বর ১০, ২০২০, মঙ্গলবার, ৪:৫৯ পূর্বাহ্ন

দেশে দীর্ঘ দিন ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের পর এবার শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে তা খুলে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন স্কুল অ্যান্ড কলেজ ঐক্য পরিষদ (বিকসকপ)। একই সঙ্গে শিক্ষক-শিক্ষিকাদেরকে আর্থিক সহায়তার দাবিও জানিয়েছে সংগঠনটি।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান সংগঠনের চেয়ারম্যান এম ইকবাল রাহার চৌধুরী।

এ সময় তিনি বলেন, গত ১৬ই মার্চ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করায় আমরাও কোনো প্রকার প্রস্তুতি ছাড়াই সাথে সাথে আমারে প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ ঘোষণা করি। যা এখনও বন্ধ রয়েছে। আরো কত দিন বন্ধ থাকবে জানা নেই।

ইকবাল রাহার চৌধুরী বলেন, এই সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো শিক্ষার্থীদের মাসিক টিউশন ফিয়ের ওপর নির্ভরশীল এবং ৯৯ শতাংশ ভাড়া বাড়িতে প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত। শিক্ষার্থীদের মাসিক টিউশন ফিয়ের ৪০ শতাংশ বাড়ি ভাড়া, ৪০ শতাংশ শিক্ষক শিক্ষিকা, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দের বেতন, বাকি ২০ শতাংশ গ্যাস বিল, বাণিজ্যিক হারে বিদ্যুৎ ও পানির বিলসহ অন্যান্য খরচ নির্বাহ না হওয়ায় অনেক প্রতিষ্ঠানে ভর্তুকি দিতে হয়।

তিনি আরও বলেন, এমন অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের আকুল আবেদন, তিনি যেন আমাদের দাবি দুইটি মেনে নেন।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Md.Monzur Rahman
১১ নভেম্বর ২০২০, বুধবার, ৭:০৪

It will not be right to open primary school until the vaccine comes besides children's immunity is so low that they will not want to take the mask again because they will take off the mask of one person and take off the mask of another.Today's children are the future of tomorrow.So first of all we have to save the lives of children yet Nothing will happen if the children do not go to school for a year.Moreover, who will take the responsibility if something happens to the children?

অন্যান্য খবর