× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার
আলাপন

আমরা অন্যের ব্যাপারে অনধিকার চর্চা করি -বাঁধন

বিনোদন

এন আই বুলবুল
২৩ নভেম্বর ২০২০, সোমবার

জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। গেল বছরের শেষের দিকে একটি ছবির শুটিং শেষ করেছেন। দেড় বছর সময় নিয়ে এই ছবির রিহার্সেল, শুটিং, ডাবিং শেষ করেছেন তিনি। এটি এখন মুক্তির অপেক্ষায় আছে। ছবিটি নির্মাণ করেছেন আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ। ছবিটিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা নিয়ে বাঁধন বলেন, এই ছবির কাজের দেড় বছর আমার জন্য মূল্যবান সময়। এখানে কাজ করতে গিয়ে নিজেকে নতুন ভাবে আবিস্কার করেছি। ক্যারিয়ারে আগে অনেক কাজ করেছি।
সেগুলোর সঙ্গে এর অনেক ব্যবধান। এখানে দর্শক নতুন এক বাঁধনকে দেখতে পাবেন। আমার এখন ভালো কাজের ক্ষুদা তৈরী হয়েছে। সব ধরনের কাজে নিজেকে জড়াতে চাই না। বিভিন্ন গনমাধ্যমে ছবিটির একটি নাম এসেছে। সত্যি বলতে, এটি ছবির নাম নয়। এখনো ছবির নাম বলতে চাই না। বাঁধন নিজেকে পরিবর্তন করেছেন বিভিন্ন ভাবে। বিশেষ করে তার শারীরিক গঠন ও মানসিক পরিবর্তন সবাইকে চমকে দিয়েছে। এ নিয়ে তার ভাষ্য, আমি নিজের জন্য এভাবে পরিববর্তন করেছি। আমার এই পরিবর্তন অন্য নারীদেরকেও সাহস যোগাবে। আমাদের সমাজে একটা প্রথা আছে, একটা সময় পর নারী তেমন কিছু করতে পারে না মনে করা হয়। অভিনয়ের ক্ষেত্রে বিভিন্ন চরিত্রে ঐ নারীকে আর চিন্তা করা হয় না। এটি একটি ভুল ধারনা। আমি মনে করি যে কোনো সময় নিজেকে পরিবর্তন করা যায়। বাঁধন তার বর্তমান ক্যারিয়ারের পরিকল্পনা নিয়েও কথা বলেন। তিনি বলেন, অনেকে জানতে চায় কেন আমি কম কাজ করছি। আমার এখন অনেক ছবিতে কাজ করা প্রয়োজন। না হয় বিয়ে করা উচিৎ। এমন অনেক সাজেশন আমাকে দেয় কেউ কেউ। আমি কী করবো সেটি আমার বিষয়। আমাদের সামাজিক নানা অবক্ষয়ের মধ্যে এটিও একটি। আমরা অন্যের ব্যাপারে অনধিকার চর্চা করি। এই চর্চা কখনো ঠিক না। চলচ্চিত্র ও টিভি মাধ্যম এখন শিল্পীদের ফলোয়ারকে প্রাধান্য দিচ্ছে। যে শিল্পীর ফলোয়ার বেশি তাকে নিয়ে সবাই বেশি কাজ করছে। বিষয়টিকে বাঁধন কিভাবে দেখছেন? উত্তরে তিনি বলেন, শুধু ভিউ-ফলোয়ারে বিশ্বাসী হলে কখনো ভালো কাজ আসবে না। এটি ইন্ড্রস্ট্রির জন্য ক্ষতিকর। ভালো কাজের জন্য চরিত্রনুযায়ী শিল্পী নির্বাচন হওয়া উচিৎ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর