× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার

লোহাগড়ায় ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

বাংলারজমিন

নড়াইল প্রতিনিধি
২৫ নভেম্বর ২০২০, বুধবার

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বি এম কামাল হোসেনের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করা হয়েছে। অন্যের বসতবাড়ি ও জমি রেকর্ড করে নেয়ার অভিযোগে ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসী এ মানববন্ধন করে। গত সোমবার দুপুরে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সামনে ওই মানববন্ধনে মুক্তিযোদ্ধা, ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য ও স্থানীয় লোকজন অংশ নেন। এর প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রাশাসকের কাছেও ভুক্তভোগীরা আবেদন করেছেন। ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেন, লোহাগড়া বাজার সংলগ্ন বিদ্যুৎ সাব-স্টেশনের পাশে ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া, কামরুল ইসসলাম, রিজাউল করিম ও মোক্তার হোসেনের দখলীয় জমি রয়েছে। ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া ও কামরুল ইসসলাম পাকা ভবন তৈরি করে দীর্ঘদিন ধরে সেখানে বসবাসও করছেন। সেখান থেকে (৮৯ নম্বর লোহাগড়া মৌজার সাবেক ৩৭৭ নম্বর খতিয়ানের সাবেক ৮২২ ও ১৫২ দাগ নম্বরের) ১২ শতাংশ জমি বি এম কামাল হোসেন নিজের নামে সেটেলমেন্ট কার্যালয় থেকে রেকর্ড করে নিয়েছেন। এ ব্যাপারে বি এম কামাল হোসেন বলেন, ‘এটি সরকারি খাস খতিয়ানভুক্ত জমি ছিল।
ওই খাস খতিয়ানের ২৬ শতাংশ জমি থেকে ১২ শতাংশ আমার নামে সেটেলমেন্ট কার্যালয় থেকে রেকর্ড করে নিয়েছি। ৩০ ধারায় মামলা করে নিয়েছিলাম। সরকারি জমি আমি দাবি করতেই পারি, চূড়ান্ত দেয়া না দেয়া সরকারের ব্যাপার।’ এ বিষয়ে যশোর জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার মো. কামরুল আরিফ বলেন, ‘আমি যতদূর জানি ওই জমি ভিপি সম্পত্তি। ভাইস চেয়ারম্যান ও তার প্রতিপক্ষরা উভয়েই আমার কাছে দরখাস্ত করেছেন। এর জন্য এক সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত শুরু হবে। পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর