× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার
সিলেটে সংবাদ সম্মেলন

আশেক এলাহীকে সঙ্গে নিয়ে কাকুয়ারপাড়বাসীকে হয়রানি করছে অজিফা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
২৬ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে রায়হান হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া বরখাস্তকৃত আশেক এলাহীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন শহরতলীর কাকুয়ারপাড় এলাকার আফরোজ আলী। গতকাল সিলেটে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, কাকুয়ারপাড় গ্রামের ‘বিতর্কিত’ মহিলা অজিফা বেগম এয়ারপোর্ট থানার সাবেক এএসআই আশেক এলাহীকে সঙ্গে নিয়ে এলাকার মানুষের বিরুদ্ধে মামলা ও জিডি করে হয়রানি করছে। এ ব্যাপারে ইতিমধ্যে সিলেটের পুলিশ কমিশনার বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন বলে জানান তিনি। সংবাদ সম্মেলনে আফরোজ মিয়া জানিয়েছেন, অজিফা বেগম এলাকায় অত্যাচারী মহিলা হিসেবে পরিচিত। তার বিরুদ্ধে নানা অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। এয়ারপোর্ট থানার সাবেক এএসআই ও সিলেটের আলোচিত রায়হান হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া আশেক এলাহীর সঙ্গে তার সখ্য দীর্ঘদিনের। তিনি নানাভাবে আমাকেসহ এলাকার লোকজনকে হয়রানি করেছেন। আশেক এলাহীকে সঙ্গে নিয়ে অতীতে ওই মহিলা এলাকার লোকজনকে শাসিয়ে রাখতেন।
গত ১১ই নভেম্বর এয়ারপোর্ট থানার ওপেন হাউস ডে ইউপি সদস্য নাজিম উদ্দিন ইমরান বক্তব্যকালে অজিফার বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে পুলিশ কমিশনারকে অবগত করেন। আশেক এলাহীর সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টিও জানান। পরে কাকুয়ারপাড়ের ৬৩ নাগরিকের স্বাক্ষরে একটি স্মারকলিপিও কমিশনারকে দেয়া হয়। স্মারকলিপিতে এলাকার মানুষ অজিফা ও তার মেয়ে রোমানা বেগমের বিতর্কিত কর্মকাণ্ড সম্পর্কে অভিযোগ করেছেন। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান রুবেলের সঙ্গে ৮ লাখ টাকা কাবিনে বিয়ে হয় অজিফার মেয়ে রোমানার। পরে মিথ্যা অজুহাতে সে স্বামীর ঘর থেকে চলে আসে। এখন কাবিনের টাকার জন্য রুবেল ও তার পরিবারকে হেনস্থা করছে। রুবেলকে জেলের ভাত খাওয়াবে বলে হুমকি দিলে ২রা নভেম্বর  রোমানার বিরুদ্ধে জিডি করেছে রুবেল। স্থানীয়রা প্রতিবাদ ও গালিগালাজসহ মামলার ভয় দেখাচ্ছে। অজিফার বড় ছেলে অপু মাদকাসক্ত। সে এলাকায় বহিরাগতদের নিয়ে মাদকের হাট বসায়। প্রকাশ্য মাদক সেবন করে। তার এসব অপকর্ম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। অপু ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর কর্মকাণ্ডে এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর