× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার

চট্টগ্রামে জব্দ ২২১ ভরি স্বর্ণের মালিকের খোঁজে পুলিশ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে
২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার

ঢাকায় পাচারের সময় চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালি থানার  রেলস্টেশন এলাকা থেকে ২২১ ভরি স্বর্ণসহ উত্তম সেন (৩৫) নামে এক বাহককে আটক করেছে পুলিশ। এসব স্বর্ণের বাজারমূল্য প্রায় এক কোটি ৪৩ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। আর এসব স্বর্ণের মূল মালিকের খোঁজে পুলিশ তৎপর রয়েছে বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। উত্তম সেন পটিয়ার ব্রাহ্মণঘাটা সেনবাড়ীর মৃত মানিক সেনের পুত্র বলে জানান ওসি। ওসি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত শুক্রবার রাতে চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালি থানার  রেলস্টেশন এলাকা থেকে উত্তম সেনকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে উত্তম নিজেকে স্বর্ণের বাহক বলে স্বীকার করেছে। তিনি জানিয়েছেন, এসব স্বর্ণ চোরাচালানির মাধ্যমে বিদেশ থেকে চট্টগ্রাম আনা হয়েছে।
আবার অবৈধভাবে ঢাকা পাচার করা হচ্ছিল। স্বর্ণের মালিক হাজারীগলির এসএন শিল্পালয়ের স্বত্বাধিকারী সনজিৎ ধর নামের এক ব্যবসায়ী। সনজিৎ পটিয়ার গোবিন্দারখীল রাখাল বাবুর বাড়ির শিবু ধরের ছেলে। তিনি পলাতক রয়েছেন। ওসি মহসিন আরো জানান, আটক উত্তম সেন ও পলাতক সনজিৎ ধর পরসপর যোগসাজশে ২২১ ভরি স্বর্ণ পাচারের উদ্দেশ্যে নিজেদের আয়ত্তে রেখে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫-বি/২৫-ডি ধারার অপরাধ করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আটক উত্তম সেনকে আমরা আদালতে সোপর্দ করবো। সনজিৎ ধরকে আটকে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। প্রসঙ্গত, গত ১০ই নভেম্বর আটটি স্বর্ণের বারসহ জোসেফ উদ্দিন রুমন নামের এক যুবককে আটক করেছিল কোতোয়ালি থানা পুলিশ। রুমন মোবাইল সেটের ব্যবসার আড়ালে স্বর্ণ চোরাচালানে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছিলেন পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে। রুমনের আয়ত্ত থেকে উদ্ধার করা স্বর্ণের পরিমাণ ছিল ৮৮ ভরি। তার ১৭ দিনের ব্যবধানে একই এলাকা থেকে উদ্ধার হলো ২২১ ভরি স্বর্ণ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর