× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার

মূর্তি আর ভাস্কর্য এক নয়- ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার

ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয় বলে মন্তব্য করেছেন নবনিযুক্ত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান। গতকাল সচিবালয়ে প্রথম কার্যদিবসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, মূর্তি আর ভাস্কর্য কিন্তু এক জিনিস নয়। আজকে পাকিস্তানে যান, ভারতে যান, সারা বিশ্বের যেকোনো রাষ্ট্রে যান না কেন সব জায়গাতেই ভাস্কর্য আছে। ভাস্কর্য যদি মূর্তি হয় তাহলে টাকার ভেতরে বঙ্গবন্ধুর ছবি আছে, এর আগে যারা ছিলেন তাদের ছবি ছিল, সেগুলো কীভাবে থাকলো? সেগুলো পকেটে নিয়ে তো সবাই ঘুরে বেড়ায়। কয়েনের মধ্যেও আছে, সারা বিশ্বে যেকোনো দেশে যান দেখেন কয়েনের ভেতরে কিন্তু সবকিছু (ছবি) আছে। এগুলো আসলে আমাদের নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি। আজকে যদি সব জায়গায় চলে, ইসলামিক দেশগুলো- আমি মিশরে গিয়েছি সেখানে দেখেছি।
সৌদি আরবে যান সেখানেও আছে। তাহলে বাংলাদেশে আজকে যারা এটা নিয়ে আলোচনা করছে তাদেরও একটু চিন্তা করতে হবে- মূর্তি আর ভাস্কর্য এক নয়। এই জিনিসটা যখন বোঝাতে সক্ষম হবো তখন সবকিছুর একটা সমাধান পেয়ে যাবো বলে আমাদের বিশ্বাস।
ভাস্কর্য সরানোর জন্য হেফাজতে ইসলামের দাবির বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, একটা জিনিস বুঝতে হবে- কিছু কিছু লোক কোনো কোনো সময় শুধু বাংলাদেশে নয়; সারা বিশ্বে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন জায়গায় কিছু অঘটন ঘটায়। যখন কিছু সমস্যা সৃষ্টি হয় তখন সমাধানেরও একটা ব্যবস্থা হয়। এ মন্ত্রণালয়ে আমি নতুন, আমি এ বিষয়গুলো চিন্তা করবো, ভাববো এবং পরামর্শ করবো- কীভাবে এটা করলে আমাদের সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে এবং সার্বিক দিক থেকে আর যেন কেউ পরবর্তীতে সুযোগ না পায় সেগুলো আমাদের চিন্তায় রাখতে হবে। আমি আপনাদের আন্তরিক সহযোগিতা চাই।
আন্দোলনকারীদের বিষয়ে বার্তা কী- জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি আপনাদের কাছে পরিষ্কার করে বলেছি। এ বিষয়গুলো নিয়ে আমি বসবো, আলোচনা করবো, চিন্তা করবো। পরবর্তীতে কী করা যায় তার একটা চিন্তা অবশ্যই আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে আসবে।
ফরিদুল হক খান বলেন, ইতিমধ্যে আমাদের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তার বক্তব্য দিয়েছেন। অতএব আপনারা একটু ধৈর্য ধরুন, আমরা এগুলোর একটা সমাধানের জন্য যে ধরনের কাজ করা প্রয়োজন সেটা আলোচনা সাপেক্ষে করবো ইন্‌শাআল্লাহ। কাজেই আপনারা অস্থির হওয়ার কোনো কারণ নেই। আমরা প্রত্যেকটা জিনিসকেই সূক্ষ্মভাবে নিজেদের বিবেক দিয়ে বিবেচনা করে দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে কাজ করবো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Dr. Md Abdur Rahman
৪ ডিসেম্বর ২০২০, শুক্রবার, ৪:০৮

Mr Recep Taiyeb Erdogan, Turkish President can give a good explanation about the Sculpture as he is the follower of the Ekhuanul Muslemeen (Muslim Brotherhood) who is going to make two Sculptures of Bangabandhu in Ankara and Istanbul.

Rafiqul Chowdhury
১ ডিসেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার, ৫:৪১

ঠিক বলেছেন মন্ত্রী মহোদয় । যেমন লাউ আর কদু এক নয় , ডিম আর আণ্ডা এক নয় । এপারে হয়ত পার পেয়ে যাবেন । ওপাড়ে কি যুক্তি দেখিয়ে পার পাবেন তা ঠিক করে রেখেছেন কি ?

Mohammed Faiz Ahmed
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ৩:৩২

আজগুবি কথা- যারা বলছেন মূর্তি আর ভাস্কর্য এক নয়, প্রকৃত ভাবে তারা ভাল করেই জানেন মূর্তি আর ভাস্কর্য এক, জেনে শুনে এসবের বিরুধিতা করা ঠিকনা এই মূর্তি বা ভাস্কর্যটি হয়ার পর সারা দেশে সারা থানায় মূর্তি / ভাস্কর্য তৈরির হিড়িক পরে যাবে। মুনাফা লুবিরা ভাড়াটিয়া হুজুরদের দিয়ে ফতোয়া দিচ্ছেন, যাতে সাপ মরে লাঠি না ভাঙ্গে।

Md. Harun al-Rashid
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ১:০৯

আবার ভাস্কার্য চর্চা ও ঈমান রক্ষার শর্তওতো এক নয়!May Allah grant us understanding. মহান নেতা বেঁচে থাকলে বজ্রকন্ঠে নিষেধ করতেন।-এটা নিশ্চিত।

Mostafizur Rahaman M
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ১১:১৮

Do not deliver your speech without reference of Quran & Hadith. Because now a days general Muslims are not fool yet. They are well known and never believe your speech without refences of Quran & Hadith. It is your own and meaningless speech and there is no relation with Islam. So be careful.

Salam
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ১১:০২

হ্যা-লাউ আর কদু, ঘাড় আর গর্দন এক নয়। এটাও বুঝলাম- মুসলিম আর ধর্মমন্ত্রী এক নয়। ধর্মমন্ত্রী হতে পারে নিকৃষ্ট জীব- মুসলিম সব সময় পরশ পাথর, আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টির জন্য তার কাজ করে।

z Ahmed
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ১০:৫৯

কোনো প্রাণীর-মূর্তি নির্মাণ করা ইসলামী শরীয়তে কঠিন কবীরা গুনাহ ও হারাম । মূর্তি সংগ্রহ, মূর্তি সংরক্ষণ এবং মূর্তির বেচাকেনা ইত্যাদি সকল বিষয় কঠিনভাবে নিষিদ্ধ। মূর্তিপূজার কথা তো বলাই বাহুল্য, মূর্তি নির্মাণেরও কিছু কিছু পর্যায় এমন রয়েছে যা কুফরী। কেউ কেউ মূর্তি ও ভাস্কর্যের মধ্যে বিধানগত পার্থক্য দেখাতে চান। এটা চরম ভুল। ইসলামের দৃষ্টিতে মূর্তি ও ভাস্কর্য দুটোই পরিত্যাজ্য। কোরআন মজীদ ও হাদীস শরীফে এ প্রসঙ্গে যে শব্দগুলো ব্যবহৃত হয়েছে সেগুলো মূর্তি ও ভাস্কর্য দুটোকেই নির্দেশ করে। এ প্রসঙ্গে কোরআন মাজীদের স্পষ্ট নির্দেশ : তোমরা পরিহার করো অপবিত্র বস্তু অর্থাৎ মূর্তিসমূহ এবং পরিহার কর মিথ্যাকথন।’ (সূরা হজ্জ : ৩০)। Daily Inqilab, 30/11/20

MOHD ABUL KALAM
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ১০:১৬

For the shake of valueless bread & butter why you sailing your iman , fear allah obey the holy quran should be moto of a muslim

mozibur binkalam
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ৯:৫৫

মাননীয় মন্ত্রী সাহেব যা বুঝেছেন তাই বলেছেন।তবে ইসলামের বিধান তা বলে না।সাধু সাবধান চলে যেতে হবে।

Shadhin
২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ৮:৫৪

As a Muslims we must know about the holy quran and about the Hadith. We should not wrong explain to Muslim Ummah....Islam always talk with reference and proved documents... Please make a quote where is written after death a men kept his/ her stachu for remembering ! Eeven grave could not allowed to make decorations.....grave would be only simple identity...not stachu.

Faruque Ahmed
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ৯:২২

মূর্তি আর ভাস্কর্য কিন্তু এক জিনিস নয় !!! পার্থক্য কি? ইতিহাসে, বাংলাদেশ লেখা থাকে যত দিন ,পাশে থাকবেন শেখ মুজিবুর রহমানের নাম !! ইতিহাসে তাকে বাঁচিয়ে রাখতে, আমাদের কোনও ভাস্কর্য / মুর্তি তৈরি করার দরকার নেই !! প্রিয় শ্রদ্ধেয় মন্ত্রী, আপনি মিশর, পাকিস্তান, সৌদি আরবের উদাহরণ কেন দিয়েছেন? এগুলি নিখুঁত উদাহরণ নয়। আপনি মুসলিম. আপনি কুরআন এবং হাদিস থেকে উদ্ধৃতি দিতে পারেন। সেখান থেকে আপনার কোনও উদ্ধৃতি আছে কি? এটি ইসলাম ধর্মের বিরোধী। টাকায় ছবি আছে, ইসলাম কি টাকায় ছবি যুক্ত করতে বলে? আমি যেমন বুঝতে পেরেছি, এমন কাজ করার জন্য বাইরের শক্তি থেকে কিছু চাপ থাকতে পারে। তারা (ইসলাম বিরোধী বাহ্যিক শক্তি) হতে পারে মুসলিম জনগণকে ঝগড়া / লড়াইয়ের জন্য আবদ্ধ করার প্রবণতায় রয়েছে।

ইলিয়াস
২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ৮:০৬

এতোদিন পর বুঝে অসলো যে, লাউ আর কদু এক নয়। আর এতে ধর্মমন্ত্রীর ধর্মজ্ঞান সম্পর্কেও ধারণা লাভ করা গেলো।

ইলিয়াস
২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ৭:৩৩

এতোদিন পর বুঝে অসলো যে, লাউ আর কদু এক নয়। আর এতে ধর্মমন্ত্রীর ধর্মজ্ঞান সম্পর্কেও ধারণা লাভ করা গেলো।

Minazur Rahman
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ৭:১০

Are you Muslim? Do you have a simple knowledge about Islam?

Zahurul Chowdhury
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ৪:৪৭

হায়রে ক্ষণস্থায়ী ক্ষমতার লোভ !!!

Ashraful Alam
২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ৩:২০

সমস্যা নেই আপনাদের প্রত্যেক নেতা নেত্রীর বাসায় যত পারেন বানান দরকার হলে মুদীর টা ও রাখেন জনগণের টাকায় জনগণের মতের বিরুদ্ধে কাজ গনতন্ত্রের কোথায় পেয়েছেন??

SJ
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ৪:১১

ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয় তার ব্যাখ্যা কি ? শেষ পর্যন্ত ভাস্কর্য স্থাপন করা হবে না ওটাই চুরান্ত হবে সরকারের পক্ষ থেকে । স্রদ্দা করুন আলেমদের । বাংলাদেশে যদি এই আলেমগন না থাকত তবে মুসলিম দেশ বলতে বাংলাদেশে কিছু থাকত না ,তেমনটা ই দেখা যাচ্ছে দেশ পরিচালনায় । বাংলাদেশকে সচেতন হওয়া উচিত সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী নিয়োগে । মুসলিম দেশে অমুসলিম কর্মকর্তা কর্মচারী ৫০% ছাড়িয়ে যাচ্ছে , যদিও তারা ৫% । হতে পারে কোন একদিন কুফল বয়ে আনবে ।

Kazi
২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ১২:৩১

পুজা করার জন্য তৈরি হয় মুর্তি। ইতিহাসে ব্যক্তির পরিচয় ভবিষ্যত প্রজন্ম দেখার জন্য ভাস্কর্য তৈরি করা হয়। তবে জন্ম মৃত্যু তারিখে দলীয় নেতাদের আচরণ প্রশ্নবিদ্ধ করে যখন সেখানে ফুল দেওয়ার প্রতিযোগিতা হয়। যেমনি মাজারে ও তা দেখা যায়।

সুলতান
২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ১১:৩৭

এই হালায় তো নতুন এক দালাল এই কুলাংগার আল্লাহ্রর জমিনে অশান্তি সৃষ্টি কারী মুনাফেক্ ও শয়তান ধারা পরিচালিত এবং বরবাদীদের অন্তর ভুক্ত। এই হালারও ফেরাউন, নমরুদ, আবু লাহাভে, আবু জাহেলদের পরিণতি ভোগ করে কঠিন অপমানের বোঝা মাথায় নিয়ে ইতিহাসের আস্থা কুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়ে দুনিয়া থেকে বিদায় নিয়ে আল্লাহ্রর কঠিন আজাব জাহান্নামে নিক্ষিপ্ত হবে, ইন শা আল্লাহ্। বাকি সবই মহান আল্লাহ্ ভাল জানেন। আল্লাহ্ হু আকবর। লা-ইলাহা ইল্লালা মোহাম্মদ রাসুল আল্লাহ্।

অন্যান্য খবর