× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার

শ্রীপুরে মা’কে কুপিয়ে হত্যা

বাংলারজমিন

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি
৩ ডিসেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

গাজীপুরের শ্রীপুরের সোনাব গ্রামে এক কিশোর ছেলে দা দিয়ে কুপিয়ে তার মা’কে হত্যা করেছে। গতকাল সকাল সাড়ে দশটার দিকে নিজ বাড়িতে ইয়াসিন (১৪) নামের এই কিশোর তার মা রেহেনা আক্তার (৪৪)কে দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। স্থানীয়দের সহায়তায় অভিযুক্ত কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। পরিবারের দাবি, অভিযুক্ত কয়েক বছর ধরেই মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন।  সোনাব গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে। আর নিহত রেহেনা আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী। ইয়াসিন স্থানীয় বলদীঘাট জেএম উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী।
নিহতের স্বামী আনোয়ার হোসেনের ভাষ্য- তারা হতদরিদ্র পরিবারের। তিনি মাঠে কাজ করেন।
তার পাঁচ ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে অভিযুক্ত ইয়াসিন পঞ্চম। প্রতিদিনের মতো তিনি সকালেই মাঠে চলে গিয়েছিলেন কাজে। বাড়িতে স্ত্রী রেহেনা, অভিযুক্ত ইয়াসিন ও ছোট ছেলে ইব্রাহীম ছিল। এক পর্যায়ে ইব্রাহীমকে তার মা বাড়ির পাশের দোকান থেকে পান আনতে পাঠায়। আর ইয়াসিনকে ডাব খেতে দেয়। ইয়াসিন নিজ হাতে ডাব কাটার সময় এক পর্যায়ে হাতে থাকা দা দিয়ে তার মা’কে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন। পরে রেহেনার আর্তচিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ বিষয়ে শ্রীপুর থানার পরিদর্শক মনিরুজ্জামান খান জানান, অভিযুক্ততে আটক করা হয়েছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর